ইংল্যান্ডের মাটিতে যে বিরল কীর্তিতে সবার উপরে সাকিব আল হাসান

বাংলাদেশ ক্রিকেট

ইংলিশদের কন্ডিশনে স্পিনারদের এক দুরুহ যুদ্ধ খেত্র , তা সবচেয়ে ভালো উপলব্ধি করতে পারে উপমহাদেশের দলগুলো। বিশেষ করে বাংলাদেশের মত স্পিন নির্ভর দল অতীতে ইংল্যান্ডের পেস বান্ধব কন্ডিশনে কম ভোগান্তির শিকার হয়নি। তবুও ২০০০ সাল থেকে প্রথম ইনিংসে বোলিংয়ের বিচারে ম্যানচেস্টারে সবচেয়ে ভালো টেস্ট বোলিং ফিগার বাংলাদেশি একজনের। তিনি আর কেউ নন, সাকিব আল হাসান।

ম্যানচেস্টার টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রস্টন চেজের কীর্তি এবার সামনে তুলে আনলো সাকিব আল হাসানের নাম। বাংলাদেশের অলরাউন্ডার ২০১০ সালে এমন এক কীর্তি গড়েছিলেন, যা এখন অবধি রেকর্ড হয়ে আছে। ক্যারিয়ার জুড়ে রেকর্ডের পসরা সাজানো সাকিব ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম ইনিংসে সবচেয়ে ভালো বোলিং ফিগারের অধিকারী স্পিনার। ২০১০ সালের জুনে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ম্যানচেস্টারে মুখোমুখি হয়েছিল স্বাগতিক ইংল্যান্ড ও সফরকারী বাংলাদেশ। ঐ ম্যাচে ইনিংস ও ৮০ রানের বিশাল জয় পেয়েছিল ইংলিশরা। তবে বল হাতে সাকিবের নৈপুণ্য ভড়কে দিয়েছিল ইংলিশদের।

সেই ম্যাচে ইংল্যান্ডের প্রথম এবং একমাত্র ইনিংসে সাকিব শিকার করেছিলেন ৫ উইকেট। সাজঘরে ফিরিয়েছিলেন কেভিন পিটারসেন, ইয়ান বেল, ম্যাট প্রায়র, আজমল শেহজাদ ও স্টিভেন ফিনকে। বল করতে হয়েছিল ৩৭.৩ ওভার, খরচ করেছিলেন ১২১ রান। তবে সাকিবের সেই বোলিং ফিগারই ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট পাওয়া স্পিনারদের মধ্যে সবচেয়ে উজ্জ্বল।

২০০০ সাল থেকে সাকিব ছাড়া আর মাত্র ৪ জন স্পিনার ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেছেন।

এই ৫ জন হলেন- অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়ার্ন, ভারতের হরভজন সিং, ইংল্যান্ডেরই গ্রায়েম সোয়ান ও চলমান ম্যানচেস্টার টেস্টে ৫ উইকেট শিকার করা ক্যারিবীয় রস্টন চেজ। এদের মধ্যে কেবল ওয়ার্নই একাধিকবার (২ বার) ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট শিকারের কৃতিত্ব দেখিয়েছেন।

মজার বিষয় হল, এই ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট শিকারের এই বিরল ৬ ঘটনার শেষ ৩টিই ঘটেছে ম্যানচেস্টারে। সাকিবের কীর্তির সাক্ষীও ছিল ম্যানচেস্টার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *