অবশেষে ভক্তদের হৃদয় ভেঙে সত্যিই বার্সা ছাড়ছেন মেসি!

ফুটবল

বার্সেলোনার সাথে একেবারে নাড়ির সম্পর্ক লিওনেল মেসির। একেবারে ছোটবেলা থেকেই তার বেড়ে ওঠা বার্সার ফুটবলার তৈরির কারখানা লা মাসিয়া থেকে। ক্লাবটির তো বটেই; নিজেকে নিয়ে গেছেন সর্বকালের সেরাদের কাতারে। পেলে-ম্যারাডোনার সাথে এখন প্রতিনিয়ত তার নাম উচ্চারিত হয়। একক নৈপুণ্যে বার্সেলোনাকে জিতিয়েছেন অসংখ্য ট্রফি। এবার সেই মেসিই বায়ার্নের কাছে দলের লজ্জাজনক পরাজয় মেনে নিতে না পেরে দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এমনটাই গুঞ্জন ইউরোপিয়ান ফুটবল জগতে।

এর আগে অনেকবার মেসিকে দলে ভেড়াতে টাকার বস্তা নিয়ে হাজির হয়েছিলেন বিশ্বের নামীদামী ধনকুবেররা। কিন্ত কখনোই তদের মেসিকে নিজ দলে টানার আশা পূরণ হয়নি। অর্থের প্রলোভনে কোনদিনই নিজের ভালোবাসার ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার কথা ঘুণাক্ষরেও ভাবেননি আর্জেন্টাইন এই মহতারকা।

কিন্ত এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন। বায়ার্ন মিউনিখের কাছে নিজ দলের অসহায় আত্মসমর্পন কোনভাবেই মেনে নিতে পারছেন না লিও মেসি। যে কারনে আগামী কিছুদিনের মধ্যেই নিজের শৈশবের ক্লাবের সাথে দীর্ঘ ১৫ বছরের সম্পর্কের ইতি টানতে চাইছেন তিনি।

লিও মেসির ক্লাব ছাড়ার এই খবরটি দিয়েছে ইস্পোর্ট ইন্টারটিভো

। ক্লাবের পরিকল্পনায় খুশি নন বলেই এই মৌসুমেই চলে যেতে চাচ্ছেন মেসি এমনটাই জানিয়েছে তারা।

অপরদিকে মেসিকে কেনার জন্য বসে আছে দুইটি ঐতিহ্যবাহী ক্লাব। ইতালিয়ান জায়ান্ট ইন্টার মিলান এখনো স্বপ্ন দেখছে মেসিকে কেনার। অন্যদিকে ম্যানসিটি স্বপ্ন দেখছে মেসি ও গার্দিওলাকে এক করার।

বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ইন্টার মিলান ভেবেছিল ২০২১ সালে মেসিকে ফ্রিতে নিয়ে যাবে। তার বেতনের জন্য চার বছরে ২৬০ মিলিয়ন ইউরো দিতেও রাজি ছিলো ইতালিয়ান জায়ান্টরা!

অন্যদিকে ম্যানসিটি যত টাকা লাগুক মেসিকে চায় এই মৌসুমেই, এই খবর দিয়েছে ইংলিশ ট্যাবলয়েড দ্য মিরর

এখন দেখার বিষয় শেষ পর্যন্ত মেসির ঠিকানা কোথায় হয়? বার্সা নাকি অন্য কোন ক্লাবে; অন্য কোন লিগে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *