মোদির সময়ে ভারত – পাকিস্তান সিরিজ ‘ভয়ঙ্কর পরিবেশ’ সৃষ্টি করবে: ইমরান খান

ক্রিকেট

ভারত এবং পাকিস্তানের দ্বৈরথটা বেশ পুরনো। দুই দেশের রাজনৈতিক অস্থিরতা সেই সম্পর্ক আরও তিক্ত করে তুলছে দিনের পর দিন। ইমরান খানের বিশ্বাস ভারতের বর্তমান সরকার যতদিন ক্ষমতায় আছেন ততদিন অন্তত সেখানে ক্রিকেট খেলা হবে না পাকিস্তানের।

ইমরান খান জানান, মোদি সরকারের আমলে পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক যে জায়গায় পৌঁছেছে, তাতে দুই দেশের মধ্যে ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজন করা অসম্ভব। দুই দেশের মধ্যে ‘ভয়ঙ্কর পরিবেশ’ তৈরি হয়ে আছে। সম্প্রতি একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, ভারতের রাষ্ট্রক্ষমতায় এখন যে ধরনের সরকার রয়েছে, এই সময়ে তাদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলা এক ভয়ঙ্কর পরিবেশের সৃষ্টি করতে পারে।’

ইমরান অবশ্য বলেছেন, ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বরাবরই ‘হাই ভোলটেজ’। নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে দুই বার ভারত সফরের অভিজ্ঞতা রয়েছে ইমরান খানের। প্রথমবার ১৯৭৯ সালে আর দ্বিতীয়বার ১৯৮৭ সালে ভারতের মাটিতে খেলেছেন তিনি। প্রথমবারের সফরে ভারতের দর্শকরা মন জয় করে নিয়েছিল ইমরানের। যদিও ১৯৭৯ সালে ঠিক উল্টো অভিজ্ঞতাই হয়েছে তাঁর। সেটিও সেই রাজনৈতিক বৈরিতার কারণেই।

সেই অভিজ্ঞতা জানিয়ে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতে প্রচুর দর্শক হয়েছে, দুই দেশের সরকার চেষ্টা করেছে যাবতীয় বাধা দূর করে ভালো পরিবেশ সৃষ্টি করতে। ১৯৭৯ সালে দুই দলের ক্রিকেটেরই তারিফ করতে দেখেছি দর্শকদের। তবে ১৯৮৭ সালে আমি যখন অধিনায়ক হয়ে ভারত সফর করি, তখন কিন্তু খুব ভালো পরিবেশ পাইনি। দর্শকদের মধ্যে অনেক অসহিষ্ণুতা লক্ষ্য করেছি, কারণ তখন দুই দেশের সরকারের মধ্যে চলছিল টানাপোড়েন।’

ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট শেষ হয়েছে ২০১২ সালে। আর টেস্ট ম্যাচ হয়েছে ২০০৮ সালে। মুম্বাইয়ে ২৬/১১ হামলার পর ভারত পাকিস্তানের সঙ্গে কোনও সিরিজ খেলতে চায়নি। ব্যতিক্রম হয়েছিল কেবল একবারই। ২০১২ সালে। ওয়ান ডে খেলা হয়েছিল। তবে দুই দেশেই বহু সময়ে ফের দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট চালু করার প্রস্তাব দিয়েছে কোনও কোনও পক্ষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *