পানিতে পিএসজির সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা!

ক্লাব ফুটবল

ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সর্বোচ্চ টুর্নামেন্ট উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ (ইউসিএল)। এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতা প্রতিটি দলেরই স্বপ্ন থাকে। তবে স্বপ্ন পূরণে কোন ক্লাব কত টাকা খরচ করতে পারে? ফ্রান্সের প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন (পিএসজি) বলা যায় সর্বোচ্চ চেষ্টাই করেছে। তবে গত কয়েক বছরে সাড়ে বারো হাজার কোটি টাকা খরচ করেও সাফল্যের মুখ দেখেনি ক্লাবটি।

২০১২ সালে পিএসজি ক্লাবটি কিনে নেয় কাতারের একটি প্রতিষ্ঠান কাতার স্পোর্টস ইনভেস্টমেন্ট। এরপর থেকেই ইউসিএল জয়ের লক্ষ্যে আরবের পেট্রোডলার ইচ্ছেমতো খরচ করতে থাকে তারা। বলা যায় এই একটা শিরোপার জন্য পানির মত টাকা ঢেলেছেন নাসের আল খেলাইফি।

অবশ্য টাকা ঢালার ফল পাওয়ার দ্বারপ্রান্তেও এসেছিল পিএসজি। রোববার রাতে বায়ার্ন মিউনিখকে হারাতে পারলেই হয়তো সব স্বপ্ন সত্যি হতো। কিন্তু ১-০ ব্যবধানে হেরে শেষ হাসি হাসা হয়নি নেইমার-এমবাপ্পেদের।

পিএসজির গত কয়েক মৌসুমের টাকা খরচের হিসেব করলে দেখা যায়, ২০১১-১২ সালে দলটি খেলোয়াড় কিনতে খরচ করেছিল ১০৭.১ মিলিয়ন ইউরো। সেবার সবচেয়ে বড় সাইনিং হিসেবে ৪২ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে হ্যাভিয়ের পাস্তোরেকে কিনে নেয় দলটি।

পরের মৌসুমে পিএসজি ১৫১ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে কেনে থিয়াগো সিলভা, লুকাস মউরা, এজেকুয়েল লাভেজ্জি এবং জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচকে। ২০১৩ সালে এডিনসন কাভানি, মার্কুইনহোস এবং ইয়োহান কাবায়োকে কিনতে খরচ হয় ১৩৫.৯ মিলিয়ন ইউরো। একই বছরের শেষ দিকে পিএসজিতে ৪৯.৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে যোগ দেন ডেভিড লুইজ।

২০১৫-১৬ মৌসুমে এসে ১১৬.১ মিলিয়ন ও ২০১৬-১৭ মৌসুমে ১৩৪.৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে পিএসজি। ২০১৭ সালের গ্রীষ্মকালীন দলবদলে তো এক নেইমারকেই রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে কিনে নেয় দলটি। এছাড়া একই মৌসুমে কিলিয়ান এম্বাপ্পেকে কিনতে খরচ হয় ১৪৫ মিলিয়ন ইউরো।

২০১৯ সালে কেইলর নাভাস এবং পাবলো সারাবিয়াকে কিনতে ৯৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেম নাসের আল খেলাইফি। অর্থাৎ ক্লাব কেনার পর থেকে এখন পর্যন্ত মোট ১.২৫৬ বিলিয়ন ইউরো (বাংলাদেশি টাকায় ১২ হাজার ৫৪৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা) খরচ করলেও কোনো ফল পায়নি পিএসজি।

তবে একবারে যে ব্যর্থ তা বলা যাবে না। কারণ ৮-৯ বছরে ৭টি লিগ ওয়ান শিরোপা, ৭টি ট্রফি ডাস চ্যাম্পিয়ন্স, ৬টি কোপা ডি লা লিগা এবং ৫টি কোপা ডি ফ্রান্স ট্রফি শিরোপা জিতেছে পিএসজি। তবে মূল লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হওয়ায় এই টাকা এখন পর্যন্ত জলে গেছে বলে হয়তো ভুল হবে না!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *