লেভানডফস্কির ব্যালন ‘ডাকাতি’ করে নিল ক’রোনা

ক্লাব ফুটবল

ব্যালন ডি অর’কে যেন নিজেদের ‘পারিবারিক সম্পত্তি’ বানিয়ে ফেলেছেন বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় দুই ফুটবলার লিওনেল মেসি এবং ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এই দুইজনের ঝুলিতেই আছে ১১ বার ব্যালনের সংখ্যা।আর যেখানে অন্য ফুটবলারদের এই পুরষ্কার ১ বার জিততেই ক্যারিয়ারে শেষ হয়ে যায়!

তবে এবারের মৌসুমে মেসি-রোনালদো নয়, ব্যালনের জয়ীর দৌড়ে সবার থেকে এগিয়ে ছিল ৩২ বছর বয়সী পোলিশ ফরোয়ার্ড রবার্ট লেভানডফস্কির। কিন্তু ক’রোনার কারণে ১৯৫৬ সালের পর প্রথমবারের মতো এই মৌসুমের ব্যালন বাতিল করা হয়। আর তাতেই কপাল পুড়েছে জার্মান বায়ার্ন মিউনিখের এই স্ট্রাইকারের।

শেষ পাঁচ বছরে পাঁচ ব্যালন জয়ীদের গোল-এসিস্ট এবং অর্জনের খাতা দেখলে সেই হতাশাটা আরো স্পষ্ট হবে। ক’রোনার কারণে লেভানডফস্কির কাছ থেকে এক প্রকার ‘ডাকাতি’ করেই ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে এই মৌসুমের ব্যালন ডি অর পুরষ্কার।

চলুন দেখে নেওয়া যাক শেষ পাঁচ বছরে ব্যালন জয়ীরা কি কি করেছিলেনঃ-

লিওনেল মেসি-২০১৫

গোল ৫৮

এসিস্ট ২৯

অর্জন- চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, লা লিগা, কোপা দেল রে, সুপার কাপ।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো-২০১৬

গোল ৫১

এসিস্ট ১৫

অর্জন- চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, কোপা দেল রে।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো-২০১৭

গোল ৪২

এসিস্ট ১২

অর্জন- চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, সুপার কাপ, লা লিগা।

লুকা মদ্রিচ-২০১৮

গোল ৪

এসিস্ট ৯

অর্জন- বিশ্বকাপ রানার্স আপ (টুর্নামেন্ট সেরা), চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, সুপার কাপ।

লিওনেল মেসি-২০১৯

গোল ৫১

এসিস্ট ২১

অর্জন- লা লিগা, সুপার কাপ।

আর এবার ২০২০ সালের রবার্ট লেভানডফস্কি অর্জন গুলো দেখে নেওয়া যাকঃ-

গোল ৫৫

এসিস্ট ১০

অর্জন- চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, বুন্দেসলিগা, পোকাল ট্রফি, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও বুন্দেসলিগায় সর্বোচ্চ গোলদাতা।

অর্থাৎ শেষ পাঁচ বছরের তুলনা করলে এবারের ব্যালন ডি অর জয়ে নিঃসন্দেহে সবথেকে বেশি এগিয়ে থাকতেন লেভানডফস্কি। তবে ক’রোনায় বাতিল হওয়া ফুটবলে ব্যক্তিগত অর্জনের সর্বোচ্চ সম্মানের এই স্মারক এবার কারো হাতেই উঠছে না। আর তাই তাঁর আক্ষেপটা দীর্ঘায়িত হলো। বর্ষসেরার লড়াইয়ে তাঁর সেরা সাফল্য ২০১৫ সালে চতুর্থ সেরা হওয়া।

সূত্রঃ বাংলাইনসাইডার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *