লুইস ঝড়ে রশিদদের উড়িয়ে প্রথম জয় তুলে নিল সেন্ট কিটস

সিপিএল (ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ)

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরের প্রথম তিন ম্যাচে টানা হারের পর অবশেষে জয়ের দেখা পেল সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস প্যাটট্রিয়টস। আসরের ১১তম ম্যাচে বার্বাডোস ট্রাইডেন্টসকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ইভেন লুইসরা।

টসে জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন সেন্ট কিটসের অধিনায়ক রিয়াদ এমরিদ। অধিনায়কের সিদ্ধান্তকে সফল করেছেন সেন্ট কিটসের বোলাররা। একের পর এক ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে উইকেটে স্থায়ী হতে দেননি কাউকে। বার্বাডসের হয়ে ৩০ পার একমাত্র ব্যাটসম্যান কোরি আন্ডারসন। ১৯ বলে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন তিনি। নির্ধারিত ২০ ওভারে বার্বাডোসের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ১৫১ রানে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ঝড় তোলেন সেন্ট কিটসের ওপেনার ইভেন লুইস। আরেক ওপেনার ক্রিস লিন ১১ বলে ১৬ রান করে ফিরলেও দ্রুতগতিতে রান তুলে মাত্র ২৮ বলে ফিফটি পূরণ করেন লুইস। ইনিংসের ১৯তম ওভারে ৬০ বলে ৯ ছক্কা আর ২ বাউন্ডারিতে ৮৯ রান করে বিদায় নেন লুইস।

এরপর সেন্ট কিটসের হয়ে বাকি কাজটা করেন বেন ডাঙ্ক। শেষ ওভারে জিততে ১৩ রানের প্রয়োজন হলে প্রথম বল ওয়াইডের পর দ্বিতীয় ও তৃতীয় বলে অভিষিক্ত নাইম ইয়াংকে পরপর দুই ছক্কা হাঁকিয়ে ৩ বল আগেই দলকে ৭ উইকেটের জয় উপহার দেন এই ব্যাটসম্যান। অপরাজিত থাকেন ২২(১১)* রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বার্বাডোস ট্রাইডেন্টস ১৫১/৭(২০)
কোরি আন্ডারসন ৩১(১৯), শাই হোপ ২৯(৩০)
জন – রাস জাগ্গিসার ২/১৭, রিয়াদ এমরিদ ১/২৩।

সেন্ট কিটস এন্ড নেভিস প্যাটট্রিয়টস ১৫২/৩(১৯.৩)
ইভেন লুইস ৮৯(৬০), বেন ডাঙ্ক ২২(১১)*।
কাইল মায়ারস ২/১৪, জেসন হোল্ডার ১/১৮।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *