সাকিবের প্রসংশা করতে গিয়ে হাশিম আমলার সাথে তুলনা করলেন ম্যাকেঞ্জি

বাংলাদেশ ক্রিকেট

পারিবারিক কারণে বাংলাদেশের ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন নিইল ম্যাকেঞ্জি। বাংলাদেশের সাথে দীর্ঘদিনের সম্পর্কের ইতিটা টেনেছেন ঘরে থেকেই। যেকারণে বাংলাদেশের কোন গণমাধ্যমে বিদায় বার্তায় তেমন কিছুই জানাতে পারেননি তিনি। তবে ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে দেওয়া লম্বা সাক্ষাৎকারে নিজের সময়ের স্মৃতিচারণ করেছেন ম্যাকেঞ্জি। যেখানে শীষ্যদের ভাল প্রসংশাও করেছেন তিনি। প্রসংশা পাওয়া ক্রিকেটারদের মধ্যে অন্যতম একটি নাম সাকিব আল হাসান। সাকিবের প্রসংশা করতে গিয়ে তাকে প্রোটিয়া কিংবদন্তি ক্রিকেটার হাশিম আমলার সাথে তুলনা করেছেন ম্যাকেঞ্জি।

সাকিবের প্রশংসা করতে গিয়ে হাশিম আমলাকে টেনে আনার কারণ অবশ্য সাকিবের ব্যাটিং অর্ডার। সবার অনাপত্তি সত্তেও বিশ্বকাপে তিনে ব্যাট করেছিলেন সাকিব। যেখানে নিজেকে সেরা প্রমাণ করেছেন তিনি। তাই সাকিবের এই ব্যাটিং অর্ডারকে দুর্দান্ত বলছেন ম্যাকেঞ্জি।

ম্যাকেঞ্জি বলেন, ‘আমি মনে করি, তিন নম্বরে দুর্দান্ত সাকিব। তার মতো খেলোয়াড়ের সবসময় ইতিবাচক মানসিকতা থাকে। তিন নম্বর একটি বিশেষ জায়গা এবং ব্যাটিং করার জন্যও ভালো। আমি মনে করি, সে এই সুযোগটা নিতে চেয়েছিল এবং নিজেকে প্রমাণ করতে চেয়েছিল। আমার মনে হয়, সে কৌঁশলে এক-দুটি পরিবর্তন এনেছিল যা তার মাপের খেলোয়াড়দের জন্য খুবই সহজ।’

তিনি আরো বলেন, ‘কৌঁশলগত সহায়তা না পেলেও অভিজ্ঞতার কারণে মানসিকতা এবং সামর্থ্য দিয়ে যেকোনো উপায়, খুঁজে বের করে ফেলতে পারে সাকিব। বিশ্বকাপে মানসিকতা এবং কৌঁশলগত দক্ষতা তাকে ভালো একটি অবস্থায় নিয়ে গিয়েছিল। এভাবেই সে বাংলাদেশকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে এবং তার কিছু ইনিংস দুর্দান্ত ছিল।’

হাশিম আমলান উদাহরণ টেনে ম্যাকেঞ্জি বলেন, ‘আমি মনে করি, তিন নম্বরে ব্যাট করার জন্য সে যোগ্য ব্যাটসম্যান এবং সে ব্যাটিং লাইনআপে যেকোনো জায়গায় ব্যাট করতে পারে। তিন নম্বরে সে ব্যাটিংয়ের জন্য বেশি সময় পায় এবং ভালো শট খেলতে পারে। সাকিব বড় মাপের হিটার নয়, কিন্তু তার টাইমিং দারুণ এবং সম্ভবত স্কিলড হিটার। হাশিম আমলার মতো সাকিবও ভালো বোলারদের বিপক্ষে ভালো ব্যাটিং করতে পারে। সে ভালো বলেও চার মারতে পারে এবং যা বোলারকে চাপে ফেলে দেয় পরিস্থিতি খুব ভালো বুঝতে পারে এবং দলের সেরা ব্যাটসম্যান যদি তিন নম্বরে খেলে এটা বাংলাদেশের জন্য প্লাস পয়েন্ট।’

তিন নম্বরে ব্যাট হাতে সাকিব কতটা দুর্দান্ত, তা গত বিশ্বকাপেই প্রমাণ করেছেন। ৮ ইনিংসে ২টি সেঞ্চুরি ও ৫টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ৬০৬ রান করেছেন তিনি। ব্যাটিং গড় ছিল- ৮৬ দশমিক ৫৭। বিশ্বকাপের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন সাকিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *