অ্যান্ডারসনের ইতিহাস গড়ার দিনে ইতিহাস গড়ল ইংল্যান্ডও

ক্রিকেট

অপেক্ষায় যেন শেষ হচ্ছিলনা জেমস অ্যান্ডারসনের। ৬০০ উইকেটের চূড়ায় উঠতে একের পর এক বাঁধা। কখনো সতীর্থদের ক্যাচ মিসের হিড়িক কখনো আলোকস্বল্পতা আবার কখনো বৃষ্টির হানা।

শেষ দিনে রেকর্ড গড়তে প্রয়োজন ছিল ১ উইকেটের। দিনের শুরুটাও বৃষ্টিতে। আকাশের ক্রন্দনের সাথে হয়ত মনটা কাঁদছিল অ্যান্ডারসনেরও। বৃষ্টি বিধাতার কাছে অ্যান্ডারসনের সাথে প্রার্থনা করেছে ইংলিশরা। হয়ত চেয়েছেন প্রতিপক্ষের ক্রিকেটাররাও। অবশেষে সবার প্রার্থনায় বৃষ্টি বিধাতা সাড়া দিলেন। শেষ বিকেলে থেমে গেল বৃষ্টি। আর মাঠে নেমেই অ্যান্ডারসনকে অপেক্ষায় রাখলেন না পাকিস্তান অধিনায়ক। অ্যান্ডারসনের বলে ইংলিশ অধিনায়কের হাতে দিলেন ক্যাচ। এবার মিস করলেন না জো রুট। আর তাতেই লাল বলটা হাতে ধরে বিশ্বকে জানান দিয়ে অ্যান্ডানসন যেন বললেন, ৩৮! তাতে কি? এখনো হারিয়ে যাইনি আমি।

অনুমেয়ভাবে বৃষ্টির বাগড়ায় ড্র হয়েছে শেষ ম্যাচটিও। তবে আগেই ১-০ তে এগিয়ে থাকায় সিরিজটা নিজেদের করে নিয়েছে স্বাগতিকেরা। আর এতেই অ্যান্ডারসনের বিশ্বরেকর্ডের দিনে ইতিহাস গড়েছে ইংলিশরাও। ২০১০ সালের পর পাকিস্তানের বিপক্ষে আবার কোন টেস্ট সিরিজ জিতে নিল ইংলিশরা।

মঙ্গলবার সাউদাম্পটনে বৃষ্টির দাপটে শেষ দিনের খেলা মাঠে গড়িয়েছিল ২৭.১ ওভার । তাতে পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেটে ১৮৭ পর্যন্ত গিয়েছিল। এরপর ড্র মেনে নেয় দুই দল। ইংলিশদের প্রথম ইনিংসে ৫৮৩ রানের জবাবে ২৭৩ রানে অলআউট হয়ে ফলোঅনে পড়া পাকিস্তান তখনো ১২৩ রানে পিছিয়ে ছিল।

দ্বিতীয় ইনিংসে পাকিস্তানের সবচেয়ে সফল ব্যাটার বাবর আজম। ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। আগের দিনের অপরাজিত আজহার আলি থামেন ৩১ রানে। তাকে ফিরিয়ে টেস্ট ইতিহাসে প্রথম পেসার হিসেবে ৬০০ উইকেটের কীর্তি গড়েন জেমস অ্যান্ডারসন।

প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়া অ্যান্ডারসন দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছেন ২ উইকেট। ম্যাচসেরা হয়েছেন জ্যাক ক্রলি। ইংলিশ টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ২৬৭ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

বৃষ্টির কারণে অধিকাংশ সময় ভেস্তে যাওয়ায় দুই দলের দ্বিতীয় টেস্টও ড্র হয়েছিল। ইংলিশরা প্রথম টেস্ট জিতেছিল ৩ উইকেটে। সিরিজ সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের জস বাটলার ও মোহাম্মদ রিজওয়ান।

শুক্রবার থেকে শুরু হবে দুই দলের তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ইংল্যান্ড (প্রথম ইনিংস) : ৫৮৩/৮ (ডিক্লেয়ার)
জ্যাক ক্রাওলি ২৬৭, জস বাটলার ১৫২
ফাওয়াদ আলম ২/৪৬, শাহীন শাহ আফ্রিদি ২/১২১।

পাকিস্তান (প্রথম ইনিংস) : ২৭৩/১০(ফলোঅন)
আজহার আলী ১৪১*, মোহাম্মদ রিজওয়ান ৫৩।
জেমস অ্যান্ডারসন ৫/৫৬, স্টুয়ার্ট ব্রড ২/৪০।

পাকিস্তান (দ্বিতীয় ইনিংস) : ২৭৪/৪(ম্যাচ ড্র)
বাবর আজম ৬৩*, আজহার আলী ৩১
জেমস অ্যান্ডারসন ২/৪৫, স্টুয়ার্ট ব্রড ১/২৭।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *