গার্দিওলার আশ্বাসেই বার্সা ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন মেসি

ক্লাব ফুটবল

অবশেষে ছিন্ন হচ্ছে দুই যুগের সম্পর্ক। দল ছাড়ছেন বার্সেলোনার প্রাণভ্রমরা লিওনেল মেসি। মেসির এই ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তারই সাবেক গুরু; বার্সেলোনার ঘরের ছেলে পেপ গার্দিওলা! তার সাথে আলোচনা করে তার পরেই ক্লাব ছাড়ার বিষয়ে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেসি- এমনটাই চাউর হয়েছে।

দুই দিন আগে মেসির দল ছাড়ার বিষয়ে এই বোমা ফাটানোর এ সংবাদ প্রকাশ করে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস। তবে স্প্যানিশ গণমাধ্যম রেডিও কাতালুনিয়া জানিয়েছে, এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা মেসি ভাবছিলেন আরও সপ্তাহ খানেক আগে থেকেই। এমনকি ভবিষ্যৎ গন্তব্যও ঠিক করে রেখেছেন। ম্যান সিটি বস এবং নিজের সাবেক গুরু পেপ গার্দিওলার সঙ্গে আগেই এ প্রসঙ্গে আলোচনাও করেছেন আর্জেন্টাইন এই সুপারস্টার।

মেসির বার্সা ছাড়ার গুঞ্জন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আরেক আলোচনা ডানা মেলে তাহলে ঠিক কোথায় হবে তার সম্ভাব্য গন্তব্য? এ নিয়ে আগ্রহের শেষ নেই মেসির ভক্তদের।

গুঞ্জনের সিংহভাগই উঠেছে ইংলিশ ক্লাব ম্যান সিটিকে নিয়ে। ক’রোনাকালীন সময়ে মেসির চড়া বেতন দেওয়ার মতো ক্ষমতা যে কয়টি ক্লাবের রয়েছে তার মধ্যে একটি সিটি।

রেডিও কাতালুনিয়া জানিয়েছে, আগের সপ্তাহেই নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে সিটি কোচ পেপ গার্দিওলার সঙ্গে আলোচনা করেন মেসি। তার উত্থানের শুরুটা এ কচের হাত ধরেই। তার অধীনে ২০০৮ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত খেলেছেন বার্সা অধিনায়ক।

বার্সেলোনা ছাড়লে তাকে নেওয়ার মতো ক্ষমতা সিটির রয়েছে কি-না তা জানতে চান ছয় বারের বর্ষসেরার পুরস্কার জেতা এই আর্জেন্টাইন তারকা। সিটি কোচ তাকে আশ্বস্ত করেন। দরকার হলে ৩০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করার সামর্থ্যের কথাও জানান। এরপরই দল ছাড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত করেন মেসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *