মেসিকে নিওয়েলসে পেতে রাস্তায় নামলো সমর্থকরা

ক্লাব ফুটবল

ঘরের ছেলে লিওনেল মেসিকে এবার ঘরে ফেরাতে চাইছেন আর্জেন্টাইন ক্লাব নিওয়েলস ওল্ড বয়েজের সমর্থকরা। এই দাবিতে স্থানীয় পর্যায়ে মিছিলও করেছে ক্লাবটির বেশ কিছু ভক্ত-সমর্থক।

কেউ গাড়িতে, কেউ মোটরসাইকেলে চেপে আবার কেউ রোজারিওর রাস্তায় চক্কর দিয়ে মিছিল করেছেন হাতে প্ল্যাকার্ড, ব্যানার নিয়ে। ‘ওলে, ওলে, মেসি নিওয়েলসের, সে সিটিতে যাবে না’– দিয়েছেন এমন শ্লোগানও।

গত মঙ্গলবার এক ফ্যাক্স বার্তায় মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানানোর পর থেকে তার সম্ভাব্য পরবর্তী ঠিকানা নিয়ে ফুটবল বিশ্বে আলোচনার চলছে কদিন ধরেই। ম্যানচেস্টার সিটি, পিএসজি মেসির নতুন ঠিকানা হতে পারে, শোনা যাচ্ছে এমন অনেক গুঞ্জনই।

এবার সেই তালিকায় হুট করে যোগ দিলো নিওয়েলসও। তাদের চাওয়া আসবেই যখন তাহলে এখনই কেন নয়?

সেই ১৩ বছর বয়সে বার্সেলোনায় পাড়ি জমানোর আগে ছেলেবেলায় নিউ ওয়েলস ওল্ড বয়েজের হয়ে মাঠ মাতাতেন মেসি। শৈশবের এই আঙিনায় কোনো একদিন ফিরে আসার কথা আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড নিজেও বলেছেন একাধিকবার।

মেসির সেই চাওয়া কখনও পূরণ হবে কিনা, সেই উত্তর কেবলমাত্র সময়ই দিতে পারবে। তবে অতীতের কিছু উদাহরণের কারণে নিউ ওয়েলস ওল্ড বয়েজের সমর্থকদেরও মনে হচ্ছে তাদের চাওয়া পূরণ সম্ভব!

ক্লাবটির ইংলিশ ভাষী সমর্থকগোষ্ঠীর প্রধান জেমি রালফ পিএ নিউজকে জানিয়েছেন তার ভাবনা। টেনে এনেছেন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারাডোনার ফিরে আসার প্রসঙ্গ।
“ম্যারাডোনা যখন স্পেনে সেভিয়ার হয়ে খেলত-তার বয়স তখন ছিল মাত্র ৩৩ বছর; মেসিরও একই বয়স-এবং ম্যারাডোনা ফিরেছিল, যোগ দিয়েছিল নিওয়েলসে; সেসময় এটা ছিল অবিশ্বাস্য। সেটা ছিল ১৯৯৪ বিশ্বকাপের আগের বছরের ঘটনা।”

একই সংগঠনের সহ-সভাপতি ক্রিস্তিয়ান দামিকো টিওয়াইসি স্পোর্টসকেও বলেছেন একই কথা, “ম্যারাডোনা এলো এবং সেসময় সবার বিশ্বাস ছিল এটা অসম্ভব। তাহলে কেন নিউ ওয়েলসের সমর্থকরা সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়কে তাদের জার্সিতে দেখার স্বপ্ন বুনবে না?”

দলটির ৬৫ বছর বয়সী সমর্থক দানিয়েল ভালভিও মনে করেন এই মুহূর্তে মেসির শৈশবের ক্লাবে ফিরে আসা সম্ভব নয়। এলেও ক্যারিয়ারের শেষ বেলায় আসবেন।

“নিওয়েলসের সমর্থক হিসেবে আমি চাই সে আসুক, কিন্তু আমরা জানি এটা অসম্ভব। যদি সে আসে, তাহলে চার বছরের মধ্যে আসবে, যখন তার ক্যারিয়ার শেষের পথে। তখন সে বলতে পারে-আমি নিওয়েলসের হয়ে কিছু ম্যাচ খেলব এবং তারপর অবসর নিব।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *