বন্যার্তদের সাহায্যার্থে যাত্রা শুরু মুশফিকের ফাউন্ডেশনের

অন্যান্য খবর

কখনো ব্যাট হাতে কিংবা উইকেটের পেছনে গ্লাভস হাতে তিনি বাংলাদেশের আস্থার নাম। তবে মুশফিকুর রহিম শুধু এটুকু দায়িত্ব পালন করেই বসে থাকেন না। বড় কিংবা বিখ্যাত মানুষ হলে যে দায়িত্বটা আরও বেড়ে যায়, সে বিষয়েও খুব সচেতন বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়কের।

ক’রোনার সময় অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে আগেই মানবতার পরিচয় দিয়েছেন দেশের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান। এবার নিজ জেলায় বন্যার্তদের সহায়তা দিয়েছেন তিনি। নিজের স্বপ্নের ‘মুশফিকুর রহিম ফাউন্ডেশন’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করছেন বগুড়ায় ৩০০ অসহায় বন্যার্তদের ত্রাণ বিতরণ করে।

নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক বার্তায় মুশফিক লিখেন, “যতদূর চোখ যায়, শুধু পানি আর পানি। দিগন্তে সবুজের হাতছানি। ভরাট যৌবনা নদীর বুক চিরে এগিয়ে চলা পালতোলা নৌকা আর মাছরাঙার জলকেলি। দর্শানার্থীদের জন্যে চোখ ঝলসানো সৌন্দর্য, আর নদীর দুপাশে বসবাসরত মানুষের জন্যে মূর্তিমান আতঙ্ক। একে করোনার ছোবল, তার উপর বন্যার নির্যাতন। স্বাভাবিক জীবনে হঠাৎ ছন্দপতন। সমস্ত ফসল, বসতবাড়ি পানির নিচে, ভয়ালদর্শন স্রোতে গ্রামের অনেকখানি নদীগর্ভে।

চিরকাল খেটে খাওয়া মানুষগুলো আজ বড্ড অসহায়। নিয়তি মেনে নেয়া সজল চোখে, আজ শুধুই সাহায্যের আকুতি। সব খবর জেনে সিদ্ধান্ত নেই, এই মানুষগুলোর কাছে আমার, সামান্য সম্মান মোড়ানো ভালোবাসা পৌছাতেই হবে। এটা আমার দায়িত্ব। এরপরের গল্পটা, শুধুই মুখে হাসি ফোটানোর গল্প।

আলহামদুলিল্লাহ। মহান আল্লাহর অশেষ কৃপায়, গত দুইদিন আগে, বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি থানার বোহাইল ইউনিয়নের অন্তর্গত বোহাইল গ্রাম ও ধারাভার্ষা চরে, বন্যাদুর্গত ৩০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের মাধ্যমে আমার স্বপ্নের Mushfiqur Rahim Foundation আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। ত্রাণ বিতরণের যাবতীয় কাজ সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্যে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি বগুড়া ইউনিটের স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতি ভালোবাসা ও সম্মান জানাচ্ছি।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *