কেউ জেতেনি সিটি-লিভারপুল দৈরথে

ক্লাব ফুটবল

কাগজে কলমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সবচেয়ে আকর্ষণীয় লড়াই। খেলাও হলো সমানে সমান। জিতলো না কেউই। সমতায় শেষ হলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল এবং বর্তমান সময়ে তাদের অন্যতম কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার সিটির মধ্যকার খেলা।

ম্যাচের ত্রয়োদশ মিনিটে সালাহর সফল স্পট কিকে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। ডি-বক্সে সাদিও মানেকে সিটির ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকার ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি।

২৫তম মিনিটে সমতা ফেরানোর ভালো একটি সুযোগ পেয়েছিল সিটি। ডান দিক থেকে কেভিন ডে ব্রুইন ক্রস বাড়ান ডি-বক্সে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ছোট ডি-বক্সের কোনা থেকে রাহিম স্টার্লিংয়ের নেওয়া শট পা দিয়ে প্রতিহত করেন গোলরক্ষক আলিসন।

এর পাঁচ মিনিট পরই অবশ্য দলকে সমতায় ফেরান জেসুস। ডান দিক থেকে ওয়াকারের বাড়ানো বল খুঁজে পায় ডে ব্রুইনকে। এই মিডফিল্ডারের পাসে ডি-বক্সে বল পেয়ে প্রথম স্পর্শে নিজের দুই পায়ের মাঝ দিয়ে ফ্লিক করে একটু এগিয়ে বাঁ পায়ের শটে ঠিকানা খুঁজে নেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড জেসুস।

৪২তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে বল বাইরে মেরে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ নষ্ট করেন ডে ব্রুইন। ভিএআরের সাহায্যে হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। বিরতির আগে খুব কাছ থেকে ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের নেওয়া শট ফিরিয়ে সিটির ত্রাতা গোলরক্ষক এডারসন।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম পাঁচ মিনিটে দুটি প্রচেষ্টা রুখে দেন দুই দলের দুই ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক। ৫৬তম মিনিটে ভালো একটি সুযোগ নষ্ট হয় সিটির। রদ্রির ক্রস থেকে বাইরে দিয়ে হেড নেন অরক্ষিত জেসুস।
বাকি সময়ে একের পর এক আক্রমণ করে গেছে দুই দল, কিন্তু কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা মেলেনি।

আট ম্যাচে পাঁচ জয় ও দুই ড্রয়ে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে আছে লিভারপুল। অপরদিকে সাত ম্যাচে তিনটি করে জয় ও ড্রয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ১১তম স্থানে আছে ম্যানচেস্টার সিটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *