‘মনে হচ্ছে নাসিরের ক্রিকেট খেলার ইচ্ছেই নেই’– নান্নু

বাংলাদেশ ক্রিকেট

দুর্দান্ত ফিল্ডিং আর উড়ন্ত সব ক্যাচ নিয়ে নাসির হোসেন ছিলেন সব সময়ই জাতীয় দলের সেরা ফিল্ডারদের একজন। মাঠে তার উপস্থিতি বোঝা যেত দৌড়-ঝাঁপে। সীমানায় কিংবা বৃত্তের ভেতরে ভালো ফিল্ডিং করে কখনো দলের রান বাঁচিয়েছেন, আবার কখনো ভালো ক্যাচ ধরে দলকে দিয়েছেন সাফল্য।


হয়তো ওই ক্যাচেই বাংলাদেশের পক্ষে এসেছে ম্যাচ। এরকম স্মরণীয় মুহূর্ত কম নেই বাংলাদেশের ক্রিকেটে। কিন্তু সেই নাসিরের নামের পাশে যুক্ত হয়েছে ‘আনফিট’ তকমা। বিপ টেস্টে ১১ স্কোর পাস মার্ক রেখেছিলেন নির্বাচকরা। কিন্তু তরতাজা নাসির পাস তো করতেই পারেননি, দুই দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন স্কোর গড়েছেন। বিপ টেস্টে নাসিরের স্কোর মাত্র ৮.৫।

আর তাইতো বিসিবি নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু মনে করেন নাছিরের খেলার ইচ্ছে নেই। তার ভাষায়, “ওর তো খুব খারাপ অবস্থা। ও খেলতে পারবে না। ৮ তো আমিই টেস্ট দিলে পাব। যারা ফেল করছে তাদের আর কোনো পরীক্ষা নেয়া হবে না। দেখেন, ফিটনেস টেস্টে পাশ করতে হলেও অনুশীলন করতে হয়।”

“আপনি এসেই তো আর পাশ করতে পারবেন না তাই না? রাজ্জাক, শাহরিয়ার নাফিস ভালো করেছে এতে ওর শিক্ষা হয়নি? এটা আপনি কী বললেন ৮! নিক লি (ফিজিক্যাল অ্যান্ড স্ট্রেংথেনিং কোচ) দেখে হাসছে। লজ্জাজনক! একজন জাতীয় পর্যায়ের প্লেয়ার, প্রথম শ্রেণির চুক্তিভুক্ত প্লেয়ার, তার ফিটনেস লেভেলে হলো ৮ (মূলত ৮.৫)!”– যোগ করেন তিনি।

ফিটনেস টেস্টে পাশ করেননি গাজীও। তিনি পেয়েছেন ৯.৪। তাকে যোগ করে নান্নু বলেন, “নিজের ফিটনেস নিজের কাছে। এটা কী আমি আপনি করে দিতে পারব? আপনি যতদিন ফিট থাকবেন খেলবেন, না হলে খেলবেন না। আমার মনে হচ্ছে নাসিরের ক্রিকেট খেলার ইচ্ছেই নেই। আমাকে নিক বলেছে, ওর তো খেলার ইচ্ছেই নাই। সোহাগ গাজীরও একই অবস্থা।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *