আফ্রিদিদের কাঁদিয়ে প্রথমবার পিএসএলের ফাইনালে তামিমের লাহোর

পিএসএল

পাকিস্তান সুপার লিগের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে শহীদ আফ্রিদির মুলতান সুলতানকে ২৫ রানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠেছে তামিম ইকবালের দল লাহোর কালান্দার্স।

ম্যাচটিতে আগে ব্যাট করতে নেমে তামিম-ফখর জামানের শুরুর ব্যাটিং ঝড় আর শেষ দিকে ডেভিড ভিসের দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে মুলতান সুলতানকে ১৮৩ রানের পাহাড়সম টার্গেট দেয় লাহোর কালান্দার্স। জবাবে হারিস রউফ ও ডেভিড ভিসের দারুণ বোলিংয়ের সামনে ১৫৭ রানেই গুটিয়ে যায় মুলতান।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ঝড়ো সূচনা এনে দেন তামিম ইকবাল এবং অপর ওপেনার ফাখর জামান। তামিমের ঝড়ে ৪.৫ ওভারেই লাহোরের স্কোর দাঁড়িয়ে যায় ৪৬ রানের। এ সময় জুনায়েদ খানের বলে ধরা খেলেন তামিম। খুশদিল খানের হাতে ক্যাচ দিয়ে তিনি আউট হয়ে যান ৩০ রান করে। ২০ বল খেলেছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। তার ইনিংস সাজানো ছিল ৫টি বাউন্ডারিতে।

তামিমের ঝড়ের পর ৪ বলে ৫ রান করে আউট হয়ে যান অধিনায়ক সোহেল আখতার। আগের ম্যাচের নায়ক হাফিজও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। একদিক আগলে দারুণ ব্যাটিং করা ওপেনার ফখর জামানও ৪৬(৩৬) রান করে। তবে শেষদিকে ঝড় তোলেন ডেভিড ভিজে। তার ২১ বলে অপরাজিত ৪৮ রানে ১৮২ রানের বড় পুঁজি পেয়েছে লাহোর কালান্দার্স

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভাল শুরু করেছিল মুলতানও। ওপেনিংয়ে ৪৭ রানের জুটি গড়েন লিথ ও আশরাফ। সেই জুটি নিজের প্রথম ওভারেই ভাঙেন রউফ। ফেরান আশরাফকে। তবে দারুণ ব্যাটিং করে ফিফটি তুলে নেন লিথ।

২৯ বলে ৫০ রানে লিথকে ফিরিয়ে ম্যাচ ঘুরে দেন ডেভিড ভিসে। ব্যাট হাতে দারুণ ভুমিকা পর বোলিংয়েও দুর্দান্ত ছিলেন তিনি। হারিস রউফ ও লিথের জুটি মুলতানের ব্যাটসম্যানদের স্থায়ী হতে দেয়নি। শেষদিকে শাহিন আফ্রিদির দারুণ বোলিংয়ে ১৫৭ রানেই অলআউট হয় মুলতান সুলতান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
লাহোর কালান্দার্স ১৮২/৬(২০)
ভিসে ৪৮(২১)*, ফখর জামান ৪৬(৩৬), তামিম ৩০(২০)
শহিদ আফ্রিদী ২/১৮

মুলতান সুলতান ১৫৭/১০(১৯.১)
লিথ ৫০(২৯), খুশদিল শাহ ৩০(১৯)
ভিসে ৩/২৭, রউফ ২/৩০।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *