১৯৯ রানে আউট হয়ে ক্রিকেট বিশ্বে অন্যরকম এক একাদশ গড়লেন ফাফ ডু-প্লেসিস

ফিচার

ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানদের জন্য তিন অংকের সংখ্যাটা যেন প্রতিদিনের স্বপ্ন। আর তাইতো নার্ভাস নাইনটিজে এসে বড় বড় ব্যাটসম্যানও তাই স্নায়ুচাপে ভুগেন। হ্যাঁ, এমনি স্নায়ুচাপে আউট হয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার ফ্যাফ ডু প্লেসিকে। সেঞ্চুরিয়ানে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে যে ১৯৯ রানেই আউট হয়েছেন প্রোটিয়া এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

টেস্ট ইতিহাসে অবশ্য ১৯৯ রানে আউট হওয়ার ঘটনাও একেবারে বিরল নয়। ডু প্লেসির আগে আরও ১০ জন ব্যাটসম্যান এমন স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় পুড়েছেন। তার চেয়ে বড় তথ্য হলো, টেস্টে একজন ব্যাটসম্যানের ২৯৯ রানে আউট হওয়ার ঘটনাও আছে।

১৯৯১ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়েলিংটনে ট্রিপল সেঞ্চুরি থেকে মাত্র এক রান দূরে থাকতে আউট হয়েছিলেন নিউজিল্যান্ডের প্রয়াত ব্যাটসম্যান মার্টিন ক্রো। এখন পর্যন্ত টেস্ট ইতিহাসে ২৯৯ রানে আউট হওয়া একমাত্র ব্যাটসম্যান তিনিই।

টেস্টে ১৯৯ রানে সবচেয়ে বেশি তিনজন আউট হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার। তারা হলেন-স্টিভেন স্মিথ (২০১৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে), স্টিভ ওয়াহ (১৯৯৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে) আর ম্যাথু এলিয়ট (১৯৯৭ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে)।

পাকিস্তান ও ভারতের দুইজন করে ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন ১৯৯ রানে। পাকিস্তানের দুজন হলেন-মুদাসসর নজর (১৯৮৪ সালে ভারতের বিপক্ষে) এবং ইউনিস খান (২০০৬ সালে ভারতের বিপক্ষে)। ভারতের দুজন-মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন (শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৯৮৬ সালে) এবং লোকেশ রাহুল (ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৬ সালে)।

এই তালিকায় শ্রীলঙ্কা এবং ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যান আছেন একজন করে- শ্রীলঙ্কার সনাথ জয়সুরিয়া (১৯৯৭ সালে ভারতের বিপক্ষে) এবং ইংল্যান্ডের ইয়ান বেল (দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২০০৮ সালে)।

দক্ষিণ আফ্রিকার একজন ব্যাটসম্যান আগে এই হতভাগাদের দলে পড়েছেন। তাকে এমন আক্ষেপে পুড়িয়েছিলেন বাংলাদেশের এক বোলার।

২০১৭ সালে পচেফস্ট্রমে মোস্তাফিজুর রহমানের বলে ১৯৯ রানে আউট হন এলগার। দেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ডু প্লেসি জায়গা করে নিলেন এলগারের সঙ্গে।

সূত্রঃ- https://www.crictoday.com/detail/8-batsmen-to-be-dismissed-for-199-in-tests

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *