১৯৬১ সালের পর এতো বড় বিপদে ভারত

ক্রিকেট

চোট-আঘাতে জর্জরিত ভারতীয় ক্রিকেট দল। একে একে জাতীয় দলের বাইরে ছিটকে গিয়েছেন তারকা ক্রিকেটাররা। পরিস্থিতি এমন যে ব্রিসবেনে বর্ডার-গাভাসকর ট্রফির চতুর্থ তথা শেষ টেস্ট ম্যাচে এক লপ্তে ভারতীয় দলে চার ক্রিকেটারকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট অভিষেক হয়েছে ওয়াশিংটন সুন্দর ও টি নটরাজনের। আর এখানেই অন্যদের থেকে আলাদা হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে এক রেকর্ড তৈরি করেছে অজিঙ্ক রাহানের দলের।


চোট-আঘাতে জর্জরিত ভারতীয় ক্রিকেট দল অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বর্ডার-গাভাসকর ট্রফিতে মোট ২০ জন ক্রিকেটারকে খেলিয়েছে। অজিঙ্ক রাহানে এবং চেতেশ্বর পূজারা ছাড়া কোনও অন্য কোনও ভারতীয় ক্রিকেটার অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে চারটি টেস্ট খেলার সুযোগ পাননি। ১৯৬১-৬২ মরসুমের পর একই কাজ করে দেখাল টিম ইন্ডিয়া।

একই টেস্ট সিরিজে প্রথম একাদশে ১৭ জন ক্রিকেটারকে খেলনো টিম ইন্ডিয়া তালিকার দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে। ১৯৫৯ সালের ইংল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজে ভারতের প্রথম একাদশে ১৭ জন ক্রিকেটার খেলেছিলেন। ২০১৪-২০১৫ মরসুমের অস্ট্রেলিয়া সফর এবং ২০১৮ সালের অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারতের প্রথম একাদশে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে সম পরিমাণ ক্রিকেটারকে খেলানো হয়েছিল।


ব্রিসবেন টেস্টে টিম ইন্ডিয়ার প্রথম একাদশে মোট চার ক্রিকেটারকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। হনুমা বিহারীর পরিবর্তে খেলছেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। টেস্ট অভিষেক হল ওয়াশিংটন সুন্দর এবং টি নটরাজনের। ব্রিসবেন টেস্টে টিম ইন্ডিয়ার প্রথম একাদশে শার্দুল ঠাকুরকেও অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *