শিরোপা না জেতায় আটকে রাখা হলো বিশ্বকাপজয়ী তারকাকে

অন্যান্য খবর

ঘটনাটা প্রায় এক মাসের আগের। এত দিন আড়ালে থাকলেও অবশেষে বেরিয়ে এলো থলের বিড়াল। দলকে প্রত্যাশিত সাফল্য এনে দিতে ব্যর্থ হওয়ায় আটকে রাখা হলো ইতালির বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ফ্যাবিও কানাভারোকে।

এশিয়ার দেশ চায়নার ফুটবলের সঙ্গে ফাবিও কানাভারোর সম্পর্কটা আজকের নয়। পাঁচ মৌসুম আগে গুয়াংঝু এভারগ্রান্ডের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। এর আগে ক্লাবটাকে চায়নিজ সুপার লিগ ও চায়নিজ এফএ সুপার কাপ জেতালেও দিন দিন ক্লাবের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপই হয়েছে কানাভারোর।

চাইনিজ ক্লাবটির সাথে কানাভারোর সম্পর্কের টানা পড়েনের মাত্রাটা বোঝা গেল দিন কয়েক আগেই। জানা গেছে, সর্বশেষ চায়নিজ সুপার লিগ জিততে না পারা ও এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস লিগে ব্যর্থতার জন্য কাতারের এক হোটেলে কানাভারো আর তাঁর কোচিং দলকে ১২ দিনের জন্য আটকে রেখেছিল গুয়াংঝু ক্লাব কর্তৃপক্ষ! ভাবা যায়!

সদ্য সমাপ্ত মৌসুমে জিয়াংসু সুনিংয়ের কাছে লিগ শিরোপা হারিয়েছে গুয়াংঝু। একে তো লিগ জিততে পারেননি, তারপর আবার এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস লিগের পরের রাউন্ডেও উঠতে পারেনি। প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিয়েছে। গুয়াংঝুকে টপকে একই গ্রুপ থেকে পরের রাউন্ডে জায়গা করে নিয়েছে জাপানের ক্লাব ভিসেল কোবে ও দক্ষিণ কোরিয়ার ক্লাব সুসোন স্যামসাং ব্লুউইংস। সব শেষ ম্যাচে দোহাতেই এই ব্লুউইংসের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে পরের রাউন্ডে ওঠার সুযোগ খুইয়েছে গুয়াংঝু।

ফলাফল, এই মৌসুমে খালি হাতেই ফিরতে হচ্ছে গুয়াংঝুকে। যে কোচের পেছনে বেতন বাবদ প্রতিবছর দেড় কোটি ইউরো করে গুনতে হচ্ছে, তাঁর এই ব্যর্থতা ঠিক হজম করতে পারেনি গুয়াংঝু। ব্যস, আর যায় কোথায়! ম্যাচের পরেই কানাভারো আর তাঁর কোচিং দলকে চীনে ফিরতে দেওয়া হয়নি। দোহার এক হোটেলে ১২ দিন ধরে আটকে ছিলেন সাবেক এই ব্যালন ডি’অরজয়ী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *