বাংলাদেশের সেবায় অসন্তোষ্ট উইন্ডিজ কোচ

ক্রিকেট

বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে একপ্রকার অসন্তুষ্টিই শোনা গেল ক্যারিবীয় দলের হেড কোচ ফিল সিমন্সের কণ্ঠে। তবে সেটি অন্য কোনো কারণে নয়, প্রস্তুতির ঘাটতিই বেশি ভাবাচ্ছে ক্যারিবীয়দের।


বুধবার (২০ জানুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ।

তিন ওয়ানডে ও দুই টেস্ট খেলতে গত ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। এরপর তিনদিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন শেষ করে গত বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) থেকে অনুশীলন শুরু করেছে তারা। যার ফলে মূল সিরিজে মাঠে নামার আগে তারা পেয়েছে ৫ দিন অনুশীলনের সময়।

এর মধ্যে সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সাভারের বিকেএসপিতে নিজেদের মধ্যকার একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে ক্যারিবীয়রা। পরে মঙ্গলবার তারা পাবে শেষ প্রস্তুতির সুযোগ। যা যথেষ্ঠ বলে মনে করেন না ক্যারিবীয় হেড কোচ সিমনস।

রবিবার নিজেদের অনুশীলন শেষে তিনি বলেন, ‘এটা (প্রস্তুতির সময়) কখনওই আমার জন্য যথেষ্ঠ নয়। আমার মতে, নিউজিল্যান্ড সফরে যেমন পেয়েছিলাম, তেমন পেলে আমাদের জন্য ভালো হতো। তবে এখন যা পেয়েছি, তাতেই মানিয়ে নিতে হবে। এ সিরিজটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা আর বিশ্বকাপ প্লে-অফ খেলতে চাই না। তাই শুরুটা ভালো হওয়া চাই।’

সবশেষ বাংলাদেশ সফরে স্বাগতিকদের স্পিন আক্রমণে নাকাল হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে এবারের সিরিজের স্কোয়াডে ছয়জন পেসার রেখেছে টাইগাররা। তবে স্পিন আক্রমণেও রয়েছে চারজন- সাকিব আল হাসান, তাইজুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ ও শেখ মেহেদি হাসান।

তাই সিমনস মনে করেন, এবারের সিরিজে পেস-স্পিন উভয় দিকেই সুবিধা রেখে পিচ বানানো হবে। তার ভাষ্য, ‘তাদের দলে চারজন স্পিনার ঠিকই আছে। তারা দুই-তিনজন পেসার খেলালে হয়তো আগের পরিকল্পনা থেকে সরে আসবে। যার মানে দাঁড়ায় এবার আরও ভালো পিচ পাওয়া যেতে পারে। এটা ভালো হবে। তবে তাদের চার স্পিনারের কথা ভুলে গেলেও চলবে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *