বিয়ের কারণেই ইনজুরিতে এই তারকা ক্রিকেটার!

ক্রিকেট

একজন ক্রিকেটার যখন ফর্মে থাকেন না তখন বাজে সমর্থকেরা তার পরিবার এবং ব্যক্তিজীবনকে আক্রমণ করে বসে। এবার এমন অভিজ্ঞতার শিকার হলেন পাকিস্তানের পেসার হাসান আলী। উইকেট শিকারের পর তার যে উদযাপন, সে কারণেই নাকি বারবার চোটে পড়েন হাসান আলী। তাছাড়া এই চোট নাকি বিয়ের পর বেড়ে গেছে। এমন সব মন্তব্য শুনে বেজায় চটেছেন হাসান আলী।

পাকিস্তানের একটি ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ২৬ বছর বয়সী পেসার বলেছেন, ‘দুই ধরনের লোক আছে। কেউ দুঃসময়ে পাশে থাকে, কেউ সমালোচনার জন্যই স্রেফ সমালোচনা করে। ক্রিকেট পারফরম্যান্সের জন্য সমালোচনাকে আমি সবসময় স্বাগত জানাই, কোনো সমস্যা নেই।

কিন্তু বুঝি না, ব্যক্তিগত জীবনকে কেন সমালোচনার লক্ষ্য বানানো হয়। আমি নাকি বিয়ের কারণে চোটে পড়ছি, ক্রিকেটে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছি। ওই লোকগুলোর কোনো ধারণাও নেই, ক্রিকেটারদের কতটা কঠিন সময়ের মধ্যে যেতে হয় এবং ক্যারিয়ারে কতটা ওঠা-নামা থাকে।

প্রচণ্ড ক্ষোভ আর হতাশা প্রকাশ করে হাসান আলী বলেন, ‘দেশের হয়ে রক্ত, ঘাম ও চোখের জল উজার করে দেওয়ার পরও যখন কিছু মানুষ আমার পেশাদারিত্ব নিয়ে উদ্ভট ও অযৌক্তিক প্রশ্ন তোলে ও বিদ্রুপ করে, তখন সত্যিই খারাপ লাগে।

আমি এমন অনেককে দেখেছি, তারা বলছেন যে উদযাপনের কারণে আমি চোট বাধাচ্ছি। হাস্যকর সব কথা। পিসিবির মেডিকেল টিম তো আমার উদযাপনে সমস্যা দেখে না! লোকে পছন্দ করুক আর না করুক, আমি এই উদযাপন চালিয়ে যাব।

‘ওয়ার্কলোড অনেক বেশি হওয়াতেই এটা হচ্ছিল। পাকিস্তানের হয়ে তিন সংস্করণে খেলছিলাম টানা, বিশ্বের কয়েকটি লিগেও খেলছিলাম। আন্তর্জাতিক অভিষেকের পর থেকেই টানা খেলার মধ্যে ছিলাম, বিশ্রাম খুব একটা পাইনি।

ম্যাচ বা ক্যাম্পের মাঝে তাই রিকভারির সময় ততটা পাইনি। লোকে অনেক সময়ই ভুলে যায়, ফাস্ট বোলাররাও মানুষ। তারা মেশিন নয়। আমরা কেবল বোলিং করেই যাব এবং দিনের পর দিন ফিট থাকব, এতটা আশা করা উচিত নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *