প্রথম লালকার্ডে জোড়া ম্যাচে নিষিদ্ধ মেসি

বাংলাদেশ ফুটবল

ইনজুরি কাটিয়ে গত রোববার স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে মাঠে নেমেছিলেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। দলের বাজে পারফরম্যান্সে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে শিরোপা হারাতে হয়েছে। নিজেও আহামরি কিছু করতে পারেননি। উল্টো ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ের একেবারে শেষভাগে মেজাজ হারিয়ে বার্সেলোনা ক্যারিয়ারে প্রথম লালকার্ড দেখেন ছয়বারের ব্যালন ডি’অরজয়ী। শুধু রেফারির না, মেজাজ হারিয়ে  বিলবাও মিডফিল্ডার আসিয়ের ভিয়ালিবরেকে চাটি মারা পছন্দ হয়নি স্প্যানিশ ফেডারেশনের ডিসিপ্লিনারি কমিটিরও। বার্সা জার্সিতে পরবর্তী দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ডিসিপ্লিনারি কমিটি। খবরটি নিশ্চিত করেছে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’।

স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা ম্যাচের তখন অতিরিক্ত সময়ের ১২০ তম মিনিটের খেলা চলছে। বার্সা লেফ্টব্যাক জর্দি আলবার উদ্দেশ্যে বল বাড়িয়ে বিলবাও গোলপোস্টের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন মেসি। তাকে আটকাতে সামনে এসে দাঁড়ান বিলবাও মিডফিল্ডার আসিয়ের ভিয়ালিবরে। মেসির পায়ে তখন বল ছিলো না, অযাচিতভাবে ভিয়ালিবরের পথ আগলে দাঁড়ানোয় মেজাজ হারিয়ে চাটি মেরে বসেন। বিষয়টি ম্যাচ রেফারি জেসুস গিল মানজানোর চোখে ধরা না পড়লেও ঠিকই নজরে আসে ভিএআর রেফারির। তিনি মাঠের রেফারিকে সংকেত দিলে খেলা বন্ধ রেখে ভিডিও ফুটেজ দেখে মেসিকে লালকার্ড দেখান স্প্যানিশ রেফারি মানজানো।

এদিকে লালকার্ড দেখানোর পর মেসির অখেলোয়াড়সুলভ আচারনকে আমলে নেয় স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের ডিসিপ্লিনারি কমিটি। ১২৩ নম্বর ধারায় মেসিকে দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ওই কমিটি। আর্টিকেল ১২৩ এ স্পষ্ট বলা আছে, যদি কোন খেলোয়াড় মাঠ কিংবা মাঠের বাইরে খেলা চলাকালীন সময় সহিংস আচারণ করেন তবে তিনি দুই অথবা তিন ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হবেন। মেসির ফাউলের ঘটনাটি অ্যাওয়ে ফ্রম দ্য বল বা ওই সময়ে বল দূরে থাকা সত্ত্বেও ভিয়ালিবরে তার সামনে এসে দাঁড়ানোয় চাটি বা ঝটকা মারার কারনে দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হলেন।

দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞার কারনে আগামী ২২ জানুয়ারি কোপা দেল রে’র শেষ ষোলোর ম্যাচে কর্নেয়া ও ২৪ জানুয়ারি লা-লীগায় এলেচের বিপক্ষে মাঠের বাইরে থাকতে হবে বার্সেলোনা কাপ্তানকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *