৪৪ বছর বয়সেও ব্যাট হাতে নেমে ঝড়ো ফিফটি হাঁকালেন দিলশান

ক্রিকেট

লঙ্কান সাবেক তিলকরত্নে দিলশান ক্রিকেট ছেড়েছেন অনেক আগেই। কিন্তু ৪৪ বছর বয়সে আবার ২২ গজে নেমে পড়লেন ব্যাট হাতে। ভিক্টোরিয়ার প্রিমিয়ার গ্রেড ক্রিকেটে কেসি সাউথ মেলবোর্ন ক্লাবের হয়ে প্রথম ম্যাচেই উপহার দিলেন দারুণ ফিফটি!


৫ বছর আগে ২০১৬ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের পর ২০১৭ সালের ঘরোয়া থেকেও বিদায় নেন। এরপর ক্রিকেট থেকে বিদায়ের পর কিছুদিন রাজনীতি করার চেষ্টা করেছিলেন। পরে আর সেই পথে না এগিয়ে পাড়ি জমান অস্ট্রেলিয়ায়। স্ত্রী মাঞ্জুলা থিলিনি ও ৪ সন্তানসহ থিতু হন মেলবোর্নের অদূরে বেকন্সফিল্ডে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৭ হাজারের বেশি রান করা ও দেড়শর বেশি উইকেট শিকারি ক্রিকেটারকে সেখানে পেয়ে গ্রেড ক্রিকেটের অনেক ক্লাবই আগ্রহী হয় দলে পেতে। দিলশান উপেক্ষা করেই আসছিলেন এতদিন। কিন্তু কেসির প্রস্তাব তার পছন্দ হয়ে যায়। দিলশান চুক্তি করে ফেলেন পুরো মৌসুম খেলার জন্য।

পরে দিন দুয়েক অনুশীলন করে মাঠে নেমেই খেলেন ৪২ বলে ৫৩ রানের ইনিংস। বল হাতেও শুরু করেন দলের ইনিংস। দিলশানের নৈপূন্যে কেসি হারায় ড্যানডেনংকে, যে ক্লাবে খেলছেন তার সাবেক লঙ্কান সতীর্থ সুরাজ রনদিভ।

এসইএন রেডিওর সঙ্গে সাক্ষাৎকারে দিলশান জানান ক্লাব ক্রিকেটে ফেরার কারণ। “অবসরের পর আর ক্রিকেট খেলতে চাইনি। মাস্টার্স ক্রিকেট আর এরকম দু-একটি ম্যাচ খেলেছি। কিন্তু কেসি ক্লাবে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে খুব ভালো আলোচনা হয় আমার। তিনি চাইছিলেন ভিক্টোরিয়ার তরুণ ক্রিকেটারদের সঙ্গে আমি যেন আমার অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করি। আমারও মনে হলো, উঠতি ক্রিকেটারদের সঙ্গে অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করি।”

“ প্রথম ম্যাচের মাত্র দিন দুয়েক আগে ক্লাবে প্রথমবার আসি আমি। আগের এক বছরে ব্যাট ছুঁয়েও দেখিনি। কিন্তু নেটে কয়েকটি বল খেলার পর মনে হলো, আমি প্রস্তুত।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *