টেম্পো চালকের সেই খেতে না পাওয়া ছেলেটা রাতারাতি কোটিপতি!

আইপিএল

বাবা পেশায় একজন টেম্পোচালক। পরিবারের নিত্যদিনের সঙ্গী দারিদ্রতা। দিন আনে দিন খায়। তবুও এই সমস্ত কিছুই যে স্বপ্ন পূরণে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে না তার জলজ্যান্ত উদাহরণ চেতন সাকারিয়ার। চরম দারিদ্র্যতাকে পেছনে ফেলে নিজের লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে গিয়ে অবশেষে স্বপ্ন পূরণ করে ফেললেন গুজরাটের এই তরুণ ক্রিকেটার।


গুজরাটের ভাবনগর জেলা থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে ভারতেজ গ্রামে জন্ম এই চেতন সাকারিয়ার। ছোট বেলা থেকে স্বপ্ন দেখতেন ক্রিকেটার হওয়ার কিন্তু দারিদ্রতার পরিবারে সেটা খুব একটা সহজ ছিল না।

তবে এই দারিদ্রতা থামাতে পারেনি চেতনকে। নিজের জেদ এবং কঠোর পরিশ্রমের মধ্যে দিয়ে তিনি নাম লিখিয়ে ফেললেন বিশ্বের সবচেয়ে বড় টি-টোয়েন্টি লিগ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে।

পরিবারে অত্যন্ত দারিদ্রতার কারণে চেতনের বাবা প্রথম থেকেই চাইতেই ছেলে পড়াশোনা করে সরকারি চাকরি করে পরিবারের হাল ধরুক। তিনি কখনোই চাননি ছেলে ক্রিকেটার হোক, কিন্তু ধীরে ধীরে ক্রিকেটে চেতনের সাফল্য দেখার পর তার বাবা তাকে ক্রিকেট খেলায় উৎসাহ দিতে থাকেন।

অবশেষে তিনি সুযোগ পেলেন আইপিএলে। আইপিএল নিলামে রাজস্থান রয়েলস দল এক কোটি কুড়ি লক্ষ টাকায় দলে নিয়েছে চেতনকে।

ধার করা জুতো দিয়ে ক্রিকেট শেখা সেই সাকারিয়া এখন কোটিপতি। গেল মৌসুমে নেট বোলার ছিলেন ব্যাঙ্গালুরুর। সেখান থেকেই ফ্র্যাঞ্চাইজির নজরে। এবারতো বাটলার, বেন স্টোকস, এমনকি মোস্তাফিজও সাথেও খেলবেন সাকারিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *