পরাজয়ের ধারা বদলে নিউজিল্যান্ডে নতুন ইতিহাস লিখতে চান তামিম

বাংলাদেশ ক্রিকেট

নিউজিল্যান্ডে এখনো পর্যন্ত তিন সংস্করণ মিলিয়ে ২৬ ম্যাচ খেলে একবারও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। এমনকি কোন অনুশীলন ম্যাচেও নেই সাফল্য। পরাজয়ের সেই ধারা এবার বদলাতে চায় বাংলাদেশ। মঙ্গলবার বিকেলে দেশ ছাড়ার আগে এমনটাই বলে গেলেন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল।


তিন ওয়ানডে আর তিন টি-টোয়েন্টি খেলতে মঙ্গলবার বিকেলে দেশ ছাড়ে বাংলাদেশ দল। করোনাভাইরাসের মহামারির সময়ে এটাই বাংলাদেশ দলের প্রথম কোন বিদেশ সফর। কিউইদের বিপক্ষে তাদের মাঠে সব দলের জন্যই খেলাটা কঠিন। বাংলাদেশের জন্য যেন কঠিনতম।

সেখানকার ঠাণ্ডা কন্ডিশন, উইকেটের ধরণ হয় ভোগান্তির কারণ। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম তবু আশাবাদী হারের তিক্ত ধারাটা এবার বদলে যাবে, ‘নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন বরাবরই আমাদের জন্য কঠিন। তবে অসম্ভব কিছুই না। নিউজিল্যান্ডে আমরা যা কোনোদিন অর্জন করতে পারিনি, চেষ্টা করব এবার যেন সেটা বদল করতে পারি। আমরা আশাবাদী।’

নিউজিল্যান্ডে পৌঁছে কড়া কোয়ারেন্টিনে থাকবে হবে ক্রিকেটারদের। ৩৫ সদস্যের বাংলাদেশের সবাইকে যাওয়ার আগে তিন দফায় করতে হয়েছে কোভিড-১৯ পরীক্ষা।

পৌঁছার পর তাদের নিয়ে যাওয়া হবে ক্রাইস্টচার্চের অদূরে লিংকন ইউনিভার্সিটি হাই-পারফরম্যান্স সেন্টারে। ১৪ দিন থাকতে হবে সেখানেই। প্রথম ৭দিন কোয়ারেন্টিনের অগ্নিপরীক্ষা। দলের কেউই কারো সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না।

প্রত্যেকেই থাকবেন যার যার কক্ষে। রুম-টয়লেট, কাপড় সবই নিজেদেরই পরিষ্কার করতে হবে। রুমের দরজার বাইরে তাদের জন্য খাবার দেওয়া হবে। সেটা দরজা খোলে নিতে হবে।

২০ মার্চ ওয়ানডে দিয়ে শুরু হবে দুদলের সিরিজ। ২৩ ও ২৬ মার্চ হবে আরও দুই ওয়ানডে। ২৮ মার্চ শুরু হবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ। ৩০ মার্চ দ্বিতীয় ও ১ এপ্রিল হবে শেষ ম্যাচ,।

নিউজিল্যান্ড সফরের বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, মোসাদ্দেক হোসেন, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন কুমার দাস, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, তাসকিন আহমেদ, আল আমিন হোসেন, শরিফুল ইসলাম, হাসান মাহমুদ, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, মোস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, রুবেল হোসেন, শেখ মেহেদি, নাসুম আহমেদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *