নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ কমিয়ে ‘মুক্তি’ পেলেন উমর আকমল

ক্রিকেট

ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব গোপন করে তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান উমর আকমল। তবে সেই সাজার বিরুদ্ধে আপিল করেছিলেন তিনি। অবশেষে সুখবর মিলল। নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ কমিয়ে ‘মুক্তি’ পেলেন উমর আকমল।


দ্য কোর্ট অব অ্যারবিট্রেশন ফর স্পোর্টস (সিএএস) এ আবেদন করে নিষেধাজ্ঞার সাজা ১২ মাসে নামিয়ে এনেছেন আকমল।
২০২০ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি নিষিদ্ধ হওয়া আকমলের শাস্তির মেয়াদ এরই মধ্যে শেষ হয়ে গেছে। অবশ্য পাকিস্তানি সোয়া ৪০ লাখ রুপি জরিমানা দিতে হবে আকমলকে।

এক বিবৃতি দিয়ে পিসিবি বলেছে, “উমর আকমল ও পিসিবি ক্রীড়া আদালতে যে অভিযোগ দায়ের করেছিল তার শুনানি হয়েছে। সেখানে আকমলের সাজা কমিয়ে ১২ মাস করা হয়েছে। এছাড়া পিসিবির বিধি ভাঙায় তাকে জরিমানা করা হয়েছে।”

দেশটির ক্রিকেট বোর্ড আরও জানিয়েছে, উমর আকমলের এখন জরিমানা দিয়ে ক্রিকেটে ফিরতে বাধা নেই। তবে তাকে পিসিবির দুর্নীতি দমক ইউনিটের পুর্নবাসন কার্যক্রমে অংশ নিতে হবে। এছাড়া তদন্তের জন্য উমর আকমলের দুটি ফোন নিয়ে নেয় পিসিবি। আকমল ফোন দুটি ফেরত পাওয়ার অনুরোধ করেন। কিন্তু ক্রীড়া আদালত তা নাকচ করে দিয়েছে।

পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও সেটা গোপন করেন আকমল। এছাড়া তার আচরণও ছিল সন্দেহজনক। তদন্তের পর এন্টি করাপশন কোডের দুটি নিয়ম ভাঙার দায়ে আকমলকে তিন বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে পিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটি।

২৯ বছর বয়সী উমর আকমল পাকিস্তানের সাবেক উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কামরান আকমলের ভাই এবং বর্তমান পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজমের কাজিন। দেশের হয়ে ৫৩টি টেস্ট, ৫৮ টি-টোয়েন্টি আর ১৫৭টি ওয়ানডে খেলেছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *