বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য আসছে দারুণ সুসংবাদ

বাংলাদেশ ক্রিকেট

দীর্ঘদিন আলোচনার টেবিলে থাকার পর আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে দীর্ঘমেয়াদি ঘরোয়া ক্রিকেটের ক্যালেন্ডার। আগামী তিন মৌসুমের জন্য ঘরোয়া ক্রিকেটের সূচি চূড়ান্ত করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। চলতি সপ্তাহে আলোচনার মাধ্যমে নেওয়া হয়েছে সিদ্ধান্ত, যেটি বুধবার বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী বিস্তারিত জানিয়েছেন সংবাদমাধ্যমকে।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমকে নিজামউদ্দিন বলেছেন, ‘এফটিপিতে ২০২৩ সাল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক সিরিজগুলো ঠিক করা আছে। এটা মাথায় রেখে আমাদের ঘরোয়া লিগের জন্যও ২০২৩ সাল পর্যন্ত একটা ক্যালেন্ডার তৈরি করা হবে। বিশেষ করে, মূল যে টুর্নামেন্টগুলো আছে- ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, বিপিএল, জাতীয় লিগসহ অন্যান্য যে প্রতিযোগিতাগুলো আছে, সেগুলোর একটা সূচি নির্ধারণ করার জন্য আমরা কাজ করছি।’

কবে নাগাদ ক্যালেন্ডার প্রকাশ করা হবে, এমন প্রশ্নে প্রধান নির্বাহীর উত্তর, ‘এ ব্যাপারে প্রক্রিয়াগত কিছু ব্যাপার সংশ্লিষ্ট কমিটি থেকে সুপারিশ আসার পরই আমরা প্রকাশ করতে পারবো। অবশ্যই সেটি বোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে। প্রাথমিকভাবে আমাদের চেষ্টা থাকবে যত দ্রুত সম্ভব ঘরোয়া ক্রিকেটকে ফিরিয়ে নিয়ে আসা।’

আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বিপক্ষে বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের চলমান সিরিজ শেষে জাতীয় লিগ দিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরানোর ভাবনা বিসিবির। ইতিমধ্যে চার দিনের ম্যাচ শেষ হয়েছে। বাকি থাকা পাঁচ ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি শেষ হবে ১৮ মার্চ। এরপরই মূলত ঘরোয়া ক্রিকেট ফেরাবে বিসিবি।

নিজামউদ্দিনের ভাষায়, ‘ইমার্জিং কাপের পরই আমরা চেষ্টা করবো ঘরোয়া ক্রিকেটকে ফিরিয়ে আনার। এই মুহূর্তে লঙ্গার ভার্সন দিয়েই হয়তো ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করবো। পরবর্তীতে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ পরিচালনার পরিকল্পনা রয়েছে।’

চলতি বছর বিপিএল আয়োজন প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাহী বলেছেন, ‘বিপিএল পরবর্তী আসরের জন্য আমরা একটা স্লট বের করে রেখেছি। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের অনুমোদন সাপেক্ষে আমরা এটা প্রকাশ করবো।’

উল্লেখ্য, সবশেষ ২০১৮-১৯ ও ২০১৯-২০ মৌসুমে বর্ষপঞ্জিকা মেনে প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে বিসিবি। ২০১৮ সালে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় ও জৌলুশপূর্ণ আসর জাতীয় লিগ শুরু হয়েছিল ১ অক্টোবর। আর ২০১৯ সালে শুরু হয়েছিল ১০ অক্টোবর। ২০২০-২১ মৌসুমের পঞ্জিকায় জাতীয় লিগ শুরুর কথা ছিল অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে, কিন্তু করোনার কারণে হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *