অক্ষর প্যাটেলের স্পিনে কুপোকাত ইংল্যান্ড; বিকেলে ডাক মারলেন ভারতীয় ওপেনার

ক্রিকেট

মোতেরায় পিচের চরিত্র বদলালেও খুব একটা বদলালো না ইংল্যান্ড ব্যাটিং’য়ের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য। গত দু’টি টেস্টের মত মোতেরায় চতুর্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসেও ব্যাটিং বিপর্যয়ের সম্মুখীন ইংলিশরা। স্পিনার অক্ষর- অশ্বীনের দাপটে চতুর্থ টেস্টের প্রথম ইনিংসে মাত্র ২০৫ রানে গুটিয়ে যার ইংল্যান্ড। জবাবে শুরুতেই ডাক মারেন ভারতীয় ওপেনার শুবমান গিল।


এদিন দিনের শুরুতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট। কিন্তু শুরু থেকেই একের পর এক উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় ইংলিশরা। ৩০ রানের মধ্যে তিন উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। সাজঘরে ফেরত চলে যান দুই ওপেনার ডোম সিবলি ও জ্যাক ক্রাউলি ও অধিনায়ক জো রুট। লাঞ্চ পর্যন্ত ইংল্যান্ডের স্কোর ছিল ৭৪ রানে ৩ উইকেট।

মধ্যাহ্ন বিরতির পর থেকে চা- বিরতি পর্যন্ত আরও দুটি উইকেট পরে ইংল্যান্ডের। ২৮ রান করে আউট হন জনি বেয়ারস্টো। এরপর ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যান স্টোকস ও অলি পোপ জুটি। বেশ কিছু আক্রমণাত্ব শট খেলেন স্টোকস। নিজের অর্ধশতরানও পূরণ করেন তিনি। কিন্তু ব্যাক্তিগত ৫৫ রানে আউট হন তিনি।

চা বিরতির পর অলি পোপ ও ড্যান লরেন্স কিছুটা লড়াই দেওয়ার চেষ্টা করলেও, তা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। পোপ ২৯ ও লরেন্স ৪৬ রানে আউট হতেইতাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে ব্রিটিশদের ইনিংস। ২০৫ রানে অলআউট হয়ে যায় ইংল্যান্ড দল।

অক্ষর প্যাটেল ৬৮ রানে ৪টি, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ৪৭ রানে নিয়েছেন ৩টি উইকেট। ৪৫ রানের বিনিময়ে ২ উইকেট শিকার মোহাম্মদ সিরাজের। বাকি এক উইকেট নিয়েছেন ওয়াশিংটন সুন্দর।

জবাবে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ভারতীয় দলেরও। প্রথম ওভারেই খাতা না খুলে আউট হয়ে যান শুভমান গিল। এরপর ইনিংসের রাশ ধরেন রোহিত শর্মা ও চেতেশ্বর পুজারা। দিনের শেষে ১৫ রানে পরাজিত পুজারা ও৮ রানে ক্রিজে রয়েছেন রোহিত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ইংল্যান্ড (প্রথম ইনিংস): ২০৫/১০ (৭৫.৫ ওভার) (স্টোকস ৫৫; অক্ষর ৪/৬৮)

ভারত (প্রথম ইনিংস): ২৪/১ (১২ ওভার) (রোহিত ৮*, পুজারা ১৫*; অ্যান্ডারসন ০/১)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *