শেষ মুহূর্তের গোলে ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে স্বস্তিতে সিটি

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

ম্যাচের অধিকাংশ সময়জুড়ে এগিয়ে থেকেও জয় হাতছাড়া হতে বসেছিল ম্যানচেস্টার সিটির। শেষ দিকে ব্যবধান গড়ে দিলেন ফিল ফোডেন। বরুশিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে ওঠার পথে কিছুটা এগিয়ে রইল পেপ গার্দিওলার দল।

সিটির ঘরের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার রাতে কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে ২-১ গোলে জিতেছে ম্যানচেস্টার সিটি। কেভিন ডি ব্রুইনে স্বাগতিকদের এগিয়ে নেওয়ার পর সমতা টানেন মার্কো রয়েস। জয়সূচক গোলটি করেন ফোডেন।

ম্যাচের ১৯তম মিনিটে গোলের উদ্দেশ্যে নিজেদের প্রথম শটেই সাফল্য পায় সিটি। মাঝমাঠে সফরকারী ডিফেন্ডার এমরে কানের ভুলে বল পায় তারা। ডে ব্রুইনে বল নিয়ে এগিয়ে ডি-বক্সের ভেতর বাঁ দিকে বাড়ান ফোডেনকে। তার পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে কাট ব্যাক করেন রিয়াদ মাহরেজ। কাছ থেকে ডান পায়ের শটে বাকিটা সারেন ডি ব্রুইনে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভালো একটি সুযোগ পান হ্যাল্যান্ড। সতীর্থের থ্রু বল পেয়ে এই তরুণ ফরোয়ার্ডের নিচু শট দারুণ দক্ষতায় ফেরান এদেরসন।

৬৫তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ আসে সিটির সামনে। ডান দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে ডে ব্রুইনের পাসে ফোডেনের নেওয়া শট পা দিয়ে ফেরান গোলরক্ষক।
৭৬তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে ডে ব্রুইনের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। পরের মিনিটে তার পাসে ফোডেনের শট ফেরান গোলরক্ষক।

৮৪তম মিনিটে সমতায় ফেরে ডর্টমুন্ড। হলান্ডের পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে ডান পায়ের শটে এদেরসনকে পরাস্ত করেন রয়েস।

জমে ওঠা ম্যাচে নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন ফোডেন। ডে ব্রুইনের দারুণ ক্রস ডি-বক্সে ইলকাই গিনদোয়ান নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ফোডেনকে পাস দেন। সহজেই বাকি কাজ সারেন ইংলিশ মিডফিল্ডার। জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা।

আগামী বুধবার ফিরতি লেগে মুখোমুখি হবে দল দুটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *