সরফরাজের পাশে দাঁড়ালেন বাবর আজম

ক্রিকেট

দল থেকে বাদ পড়া সাবেক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন বাবর আজম। ৩৩ বছর বয়সী উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চান পাকিস্তানি অধিনায়ক।


২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হতাশাজনক পারফর্ম্যান্সের পর নেতৃত্ব হারান সরফরাজ। এমনকি একাদশেও নিজের জায়গা হারিয়ে ফেলেন তিনি।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে মাত্র দু’টি ওয়ানডে খেলার সুযোগ হয় তার। অবশেষে দীর্ঘ সময় পর একাদশে সুযোগ মিলল সরফরাজের। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ওয়ানড সিরিজের শেষ ম্যাচে মাঠে নামেন তিনি। ব্যাট হাতে নেওয়ার পর উইকেটের পেছনে গ্লাভস হাতেও দেখা যায় সরফরাজকে। পাকিস্তান ম্যাচটি ২৮ রানে জিতে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নেয়। অবশ্য পাকিস্তানের ৩২০ রানের পেছনে মিডল-অর্ডারে ব্যাটিংয়ে নামা সরফরাজের অবদান ১৩ বলে ১৩ রান।

এমনিতে এই সিরিজের জন্য ঘোষিত স্কোয়াডে সরফরাজের অন্তর্ভূক্তি নিজেই হয়ে ওঠে আলোচনার বিষয়। তবে বাবর বারবার জানান, সিনিয়রদের ওপর তার বিশ্বাস আছে। ম্যাচ জয়ের পর পাকিস্তানি অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা তাকে বিশ্বাস করি, যার কারণে সে আমাদের সঙ্গে আছে। ওয়ানডেতে, উইকেটরক্ষক ও ৫ নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে আমরা চেষ্টা করছি যতুটুকু সম্ভব তাকে ব্যবহার করতে। ’

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচে চোটে পড়া শাদাব খানের পরিবর্তে সুযোগ হয় সরফরাজের। সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তানের মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতাও ৩৩ বছর বয়সীকে একাদশে থাকার সুযোগ এনে দেয়। তবে টপ-অর্ডারে ফখর জামান ও বাবার আজমের দুর্দান্ত ইনিংসের সুবাদে মিডল-অর্ডাররা এবারও সুযোগ পায়নি নিজেদের মেলে ধরার। সেখানে সরফরাজও উল্লেখযোগ্য কিছু করে দেখাতে পারেননি।

তবে বাবর জানান, ‘আমরা চেয়েছিলাম বেঞ্চের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে। আমাদের মিডল অর্ডাররা লড়াই করছে। তাই ভাবলাম, আমরা তাকে এই অর্ডারে নিয়ে আসি। ’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *