এমবাপ্পের খুব কাছে রিয়াল মাদ্রিদ

ক্লাব ফুটবল

২০১৮ সালে কিলিয়ান এমবাপ্পে যখন ১৩৫ মিলিয়ন ইউরোতে মোনাকো থেকে পাকাপাকিভাবে পিএসজির খেলোয়াড় বনে গেলেন, সেই সময় এই ফরাসিকে পেতে উঠে পড়ে লেগেছিলো রিয়াল মাদ্রিদ। এরপর নানা সময় এমবাপ্পের পেছনে ছুটেও তাকে পায়নি স্প্যানিশ জায়ান্টরা। তবে আসছে মৌসুমে এমবাপ্পেকে পাওয়ার দৌড়ে খুব কাছে রিয়াল মাদ্রিদ। কেননা, এই দফায় এমবাপ্পেই মাদ্রিদ শিবিরে যোগ দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

২০১৮ সালে এমবাপ্পের মাদ্রিদে যোগ না দেয়ার অন্যতম কারন ছিলো, আগের মৌসুমেই মোনাকো থেকে লোনে পিএসজির জার্সিতে খেলেছিলেন। ফলে পিএসজি বোর্ড ও ভক্তদের সাথে সখ্যতা তৈরি হয়েছিলো বেশ। এছাড়া সেই সময়ের মাত্র ১৮ বছর বয়সী এমবাপ্পে নিজ দেশ ফান্স ছাড়তে চাইছিলেন না। তবে এখন এমবাপ্পে ভিন্ন স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন।

২০২২ সালে পিএসজির সাথে চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে এমবাপ্পের৷ ইতোমধ্যেই ক্লাব কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েকবার চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর প্রস্তাব দিলেও তাতে সায় দেননি। উল্টো ক্লাবকে জানিয়ে দিয়েছেন, চলতি মৌসুম শেষেই পিএসজি ছাড়বেন তিনি। যোগ দিতে চান রিয়াল মাদ্রিদে। পিএসজির স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দো অবশ্য এখনও আশা হারাননি। ক্লাব কর্তৃপক্ষ এমবাপ্পেকে আরো ভালো স্পোর্টিং প্রজেক্ট ও মোটা অংকের অর্থের প্রস্তাব দিয়ে নতুন চুক্তিতে সই করাতে পারবেন বলে মনে করেন তিনি।

এদিকে, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিদায়ের পর ক্লাবে নতুন করে বড় নাম যোগ করতে পারেনি রিয়াল মাদ্রিদ। চেলসি থেকে ইডেন হ্যাজার্ডকে নিয়ে এলেও প্রত্যাশার ছিঁটেফোঁটাও পূরণ করতে পারেননি তিনি। ফলে সময়ের অন্যতম সেরা তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পেকে খুব করে দলে পেতে চাইবে রিয়াল মাদ্রিদ। তাইতো সামনের দিনগুলোতে পিএসজির সাথে মাদ্রিদ কর্তাদের মাঠের বাইরের খেলাটা জমবে বেশ বলেই অনুমান করাই যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *