রাসেল-কার্তিকের টেস্ট মেজাজের ব্যাটিংয়ে কলকাতার নাটকীয় হার

আইপিএল

এভাবেও হেরে যাওয়া যায়! আইপিএলে মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের বিপক্ষে কলকাতার নাটকীয় হার দেখে হয়ত সবার মনে এই কথাটাই আসবে। কেননা উইকেটে থেকেও যখন রাসেল-দিনেশ কার্তিকরা দলকে জেতাতে পারেননা সেটাও আবার বলের সমান রানে, তখন নিশ্চয়ই সেটা অবিশ্বাস্যই মনে হবে। আর সেটাই ঘটেছে আইপিএলের পঞ্চম ম্যাচে।


এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে ১৫২ রানে অলআউট হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। জবাবে ব্যাট করতে নামা কলকাতার শেষ পাঁচ ওভারে প্রয়োজন ছিল ৩১ রান। ১৬ তম ওভারের দ্বিতীয় বলে সাকিব যখন ৯ বলে ৯ রান করে আউট হন তখন প্রয়োজন ছিল ২৮ বলে ৩১ রানের। ক্রিজে ছিলেন আন্দ্রে রাসেল এ দিনেশ কার্তিক।

দুজনের জুটু ভাঙে ইনিংসের শেষ ওভারে। এতে হয়ত অনেকেই ভাববেন ম্যাচ ততক্ষণে জিতেছে নাইটরা। কিন্তু না এদিন ব্যাট হাতে কলকাতাতে যেন ডুবিয়েছেন কার্তিক ও রাসেল। বার বার ব্যাট বদল করলেও কোনমতেই টাইমিং মেলাতে পারছিলেন না দুজনের কেউই। দুইবার জীবন পেয়েও ১৫ বলে ৯ রান করে রাসেল। যেখানে ১ টি বাউন্ডারি সেটিও ফ্রি হিট থেকে।

অন্যদিকে দিনেশ কার্তিক ১১ বলে ৮ রানে অপরাজিত থেকেও দলকে জেতাতে ব্যর্থ হন। দুজনের টেস্ট মেজাজে ব্যাটিংয়েই ডুবে যায় কলকাতা। ৩ উইকেট হাতে থাকলেও ১৪২ রান তুলতে সক্ষম হয় নাইটরা।

অথচ শুরুটা দারুণ করেছিলেন দুই ওপেনার শুভমান গিল ও নিতিশ রানা। একটা সময় মনে হচ্ছিল যেন দশ উইকেটেই জিতে যাবে কলকাতা। ৭২ রানের দারুণ জুটির পর ৩৩ রান করে ফেরেন গিল। আর এই ম্যাচেও ফিফটি তুলে নিয়ে ৫৭ রান করে ফেরেন নীতিশ রানা। দুই ওপেনারের পর আর কেউই দুই অঙ্কের ঘরে পৌছতে পারেননি।

এর আগে শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন আপ নিয়েও কেকেআরের বিরুদ্ধে বড় রান তুলতে ব্যর্থ হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। শুরু থেকে ধারাবাহিকভাবে উইকেট হারাতে থাকা তারা। তবে ১৬ তম ওভারে রোহিতের বিদায়ের পরই চিত্র আরো বদলে যায়। ফেরার আগে তিনটি চার ও একটি ছয়ের সাহায্যে তিনি করেন ৩২ বলে ৪৩।

এর ঠিক ছয় বল পরেই ফেরেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। ১৭ বলে ১৫ রান করে হার্দিক প্রসিদ্ধ কৃষ্ণর বলে আন্দ্রে রাসেলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। তিনি আউট হওয়ার সময় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের স্কোর ছিল ১৬.২ ওভারে ৫ উইকেটে ১২৩। বিপজ্জনক কায়রন পোলার্ডের উইকেট তুলে নেন রাসেল। ৮ বলে ৫ রান করে তিনি কট বিহাইন্ড হন ১৭.২ ওভারে, দলের ১২৫ রানের মাথায়। পরের বলেই মার্কো জেনসেনের উইকেটটি তুলে নেন রাসেল।

২ ওভার বোলিংয়ে ১২ রানে ৫ উইকেট শিকার করেন রাসেল। সাকিব ৪ ওভার বোলিং করে ২৩ রানে নেন ১ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স: ২০ ওভারে ১৫২/১০( সূ্য্যকুমার যাদব ৫৬, রোহিত ৪৩; রাসেল ৫/১৫, সাকিব ১/২৩)

কলকাতা নাইট রাইডার্স: ২০ ওভারে ১৪২/৭(রানা ৫৭, গিল ৩৩; চাহার ৪/২৭, বোল্ট ২/২৭)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *