তামিম আর আমি দেশসেরা উদ্বোধনী জুটি – ইমরুল কায়েস

ফিচার বাংলাদেশ ক্রিকেট

বরাবরই বাংলাদেশের ক্রিকেটে ওপেনিং জুটিতে সমস্যা ছিল! মাঝে তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস জুটি বেশ আশা জাগিয়েছিল দেশের ক্রিকেটের এই সূচনাকারী জুটিতে। তবে এ ক্ষেত্রে ইমরুল কায়েসের প্রতি নির্বাচকদের অনাস্থাকেই দায়ী করছেন দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা ইমরুল কায়েস।

বাংলাদেশের হয়ে দীর্ঘ দিন ধরে একসাথে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। তামিমকে কখনো দলে জায়গা হারাতে না হলেও আসা-যাওয়ার মধ্যেই থাকেন ইমরুল। বারবার উপেক্ষিত হলেও ইমরুল কায়েয়া মনে করেন বাংলাদেশের সেরা উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ও তিনিই এখনো পর্যন্ত সেরা জুটি!

তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস। ছবিঃ সংগ্রহিত

সাম্প্রতিক সময়ে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, তারপর নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের পারফর্মেন্স খুবই বাজে। তারপরও শ্রীলঙ্কা সফরের ২১ সদস্যের দলেও জায়গা পাননি ইমরুল কায়েস। আর তাতেই ক্ষোভ ঝাড়েন এঈ ওপেনার।


সম্প্রতি গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইমরুল কায়েস বলেন, ‘তামিম আর আমি যখন ঘরোয়া ক্রিকেটেও একসঙ্গে খেলি। তখন আমি মনে করি, আমরা বাংলাদেশ দলেই ইনিংস উদ্বোধন করছি। আমি এভাবে অনুভব করি যে, ইনিংস উদ্বোধনে বাংলাদেশে আমরাই (তামিম-ইমরুল) সেরা জুটি।’

ইমরুল কায়েসের এমন বক্তব্য অত্যুক্তি নয়। পরিসংখ্যানও তাই বলে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সব মিলিয়ে ১২৫ ইনিংসে তামিম-ইমরুল জুটির সংগ্রহ চার হাজার ৪২৫ রান। সাকিব-মুশফিক জুটির পর তামিম-ইমরুল জুটি দ্বিতীয় স্থানে।

টেস্টে এ পর্যন্ত তামিম ও ইমরুল একসঙ্গে উদ্বোধন করেছেন ৫৮টি ইনিংস। চারবার শতক ও ১১ বার অর্ধশতক পেরিয়েছে তাদের জুটি। বাংলাদেশের পক্ষে টেস্টে সর্বোচ্চ ৩১২ রানের জুটিও তামিম ও ইমরুলের দখলে। টেস্টে তারা দুজনে জুটিবেঁধে করেছেন দুই হাজার ৪৩৩ রান। এটি বাংলাদেশের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

এবার আসা যাক ওয়ানডে ফরম্যাটে। সেখানে তামিম-ইমরুল জুটি বাংলাদেশের পক্ষে চতুর্থ সর্বোচ্চ। ৬২ ইনিংসে ১০ বার অর্ধশতক ও দুবার শতক পেরিয়েছে এ জুটি। মোট জুটিবদ্ধ হয়ে রান করেছেন এক হাজার ৯২৭।

আরো পড়ুনঃ- ক্ষমা চাইতে বললেন শাহরুখ; রাসেলের কড়া জবাব

২ ওভারে ৫ উইকেট নিয়ে আইপিএলের রেকর্ড বুকে আন্দ্রে রাসেল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *