প্রথম দিনে উইকেট হীন মুমিনুলরা; তামিমদের বড় সংগ্রহ

বাংলাদেশ ক্রিকেট

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মূল সিরিজ শুরুর আগে দুই দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে মাঠে নেমেছে সফরে থাকা বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। শনিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় (বাংলাদেশ সময় সাড়ে ১০টা) লাল দল ও সবুজ দলে ভাগ হয়ে শুরু হয় ম্যাচটি। যেখানে আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথম দিন শেষে ৩১৪ রান সংগ্রহ করেছে লাল দল।


আগে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করেছে লাল দল। দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সাইফ হাসান দুজনেই দারুণ ব্যাটিং করছেন। ফিফটি তুলে নিয়ে ব্যক্তিগত ৬৩ রানে স্বেচ্ছা অবসরে গেছেন তামিম ইকবাল।

২৩ রানে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়া সাইফ হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েই স্বেচ্ছায় মাঠ ছেড়েছেন ৫২ রান করে। ওয়ান ডাউনে নেমে হাফ সেঞ্চুরি ‍তুলে নেন শান্ত। ৫৩ রান করে স্বেচ্ছায় মাঠ ছাড়েন তিনিও। চার নম্বরে নেমে ফিফটি তুলে নেন মুশফিকুর রহিমও। ৬৬ রান করে স্বেচ্ছা অবসরে যান তিনি। ৪৮ রান করে স্বেচ্ছায় মাঠ ছাড়েন নুরুল হাসান সোহান। ২৪ রানে অপরাজিত আছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ
লাল দল: ২০৪/০ (তামিম ৬৩, সাইফ ৫২, শান্ত ৫৩, মুশফিক ৬৬, সোহান ৪৮)

বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা সফরে গেছে ২১ জনের স্কোয়াড নিয়ে। আন্তঃস্কোয়াডের এই প্রস্তুতি ম্যাচে ১১ জন করে দুই দলের ২২ জন খেলোয়াড় প্রয়োজন হওয়ায় তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন লাল দলে নেওয়া হয়েছে একজন সাপোর্ট স্টাফকে।


সবুজ দলের নেতৃত্বে আছেন বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক। করোনার কারণে প্রস্তুতির জন্য লঙ্কানরা কোনো স্থায়ীয় দল না দেওয়ায় এই বিশেষ ব্যবস্থা টাইগারদের।
কাতুনায়াকের চিলাও মারিয়ানস ক্রিকেট ক্লাব গ্রাউন্ডে দুই দিনের এই প্রস্তুতি ম্যাচে আগে ব্যাটিংয়ে নেমেছেন তামিম-মুশফিকরা। প্রস্তুতিমূলক এই অনুশীলন শেষে ২১ জনের স্কোয়াড নামিয়ে আনা হবে ১৬ জনে। ২১ এপ্রিল থেকে সিরিজের প্রথম টেস্ট দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মূল লড়াই।

    প্রস্তুতি ম্যাচের দুই দল

লাল দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহীম, নুরুল হাসান সোহান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ রাহি, সৈয়দ খালেদ আহমেদ এবং একজন সাপোর্ট স্টাফ

সবুজ দল: সাদমান ইসলাম অনিক, লিটন কুমার দাস, মুমিনুল হক সৌরভ, মোহাম্মদ মিঠুন, ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বি, শুভাগত হোম, নাঈম হাসান, শরিফুল ইসলাম, এবাদত হোসেন চৌধুরী, শহিদুল ইসলাম এবং মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *