মেসি জাদুতে ১২ মিনিটে ৪ গোল দিয়ে কোপার শিরোপা জিতলো বার্সা

ক্লাব ফুটবল

ফুরালো প্রায় ৭০০ দিনের শিরোপা খরা। পুরোনো রূপে প্রত্যাবর্তনের মিশনে শুরু করা এবারের মৌসুমে গত বারের মতো শিরোপাশূন্য থাকতে হলো না স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনাকে। কোপা দেল রের ফাইনালে এথলেটিক বিলবাওকে ০-৪ গোলে উড়িয়ে দিয়ে মৌসুমের প্রথম শিরোপা ঘরে তুললো ব্লগ্রানারা। নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যানেরও বার্সার দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই প্রথম শিরোপা।

যদিও মৌসুমের শুরুতে সময়টা ভালো যাচ্ছিলো না বার্সেলোনার। লিগে একের পর এক হোঁচট খেতে খেতে এগুতে থাকে কাতালানরা। একই সাথে দলের প্রতি মনোক্ষুণ্ণ হয়ে ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেন মেসি।

সেই সব ঝড় সামলে নতুন বছরের শুরুতে দারুনভাবে ঘুরে দাঁড়ায় বার্সেলোনা। সবমিলিয়ে টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকে মেসি-গ্রীজম্যানরা।

বার্সার সামনে এখনো অবশ্য আশা আছে লিগ শিরোপা পুনরুদ্ধারের। অ্যাটলেটিকো এবং রিয়াল মাদ্রিদকে পেছনে ফেলে সেরা হওয়ার দৌড়ে ভালোভাবেই আছে রোনাল্ড কোম্যানের শিষ্যরা। এবার কোপা দেল রের শিরোপা জেতায় স্পেনের একমাত্র দল হিসেবে ঘরোয়া ডাবল জয়ের সম্ভাবনাও টিকে রইলো কাতালানদের।

মর্যাদার ফাইনালে শুরু থেকে এথলেটিক বিলবাওকে চেপে ধরে বার্সেলোনা। প্রথমার্ধের সিংহভাগ সময় জুড়ে বল দখলে রাখলেও আক্রমনে গিয়ে তেমন একটা সুবিধা করতে পারছিলো না মেসিরা।

গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ায় বার্সেলোনা। মাত্র ১২ মিনিটের ব্যবধানে ৪ গোল করে এথলেটিক বিলবাওকে একেবারে কোণঠাসা করে ফেলে কোপা দেল রের ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি বার শিরোপাজয়ীরা।

৫৯তম মিনিটে গ্রীজম্যানের গোলে এগিয়ে যাওয়ার ঠিক ৩ মিনিট পর ব্যবধান বাড়ান ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং। এরপরই শুরু হয়ে মেসি ম্যাজিক। ৬৭ থেকে ৭১ এই চার মিনিটের ব্যবধানে দুইবার বল জালে জড়িয়ে দলের বড় জয় নিশ্চিত করেন এই ক্ষুদে জাদুকর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *