প্রিমিয়ার লিগ ১-১ সুপার লিগ

ক্লাব ফুটবল

ফুটবল বিশ্বে বর্তমানে একটাই আলোচনা সেটা হলো সুপার লিগের সম্ভাব্য আবির্ভাব। যেখানে অংশ নেয়ার ব্যাপারে ইতোমধ্যেই সম্মতি দিয়েছে ইউরোপের নামীদামী ১২টি ক্লাব। সেই ডজন খানেক ক্লাবেরই একটি লিভারপুল। যারা অন্য সবকিছু ভুলে সুপার লিগে নাম লেখানোর ব্যাপারে রাজি হয়েছে। সেই লিভারপুলকেই এবার মাঠের খেলায় আটকে দিলো লিডস ইউনাইটেড। বলতে গেলে তথাকথিত সেই সুপার লিগকেই মাটিতে নামালো ইপিএলের দলটি।

যদিও লিডস ইউনাইটেডের বিপক্ষে জয়ের পথেই ছিল লিভারপুল। কিন্তু শেষ দিকে গোল হজম করে পয়েন্ট হারায় ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। লিডসের মাঠে সোমবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছে।

সম্ভাব্য সুপার লিগের বিরোধিতা করে ম্যাচ শুরুর আগে ‘ফুটবল সমর্থকদের জন্য’ লেখা টি-শার্ট পরে অনুশীলন করে লিডসের খেলোয়াড়রা। ক্লাবের সমালোচনা করে অ্যানফিল্ডের বাইরে বিভিন্ন ব্যানার টাঙায় লিভারপুল সমর্থকরাও।

আক্রমণাত্মক ফুটবলে শুরু থেকে প্রতিপক্ষকে চেপে ধরে লিভারপুল। পঞ্চম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে থিয়াগো আলকান্তারার জোরালো শটে গোলরক্ষক এক হাতে বল ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান। ১৯তম মিনিটে দিয়োগো জোতার শট প্রতিহত হয় এক ডিফেন্ডারের পায়ে।

২৪তম মিনিটে ফাবিনিয়োর ভুল পাসে ভালো একটি সুযোগ পায় লিডস। এগিয়ে এসে প্যাটট্রিক ব্যামফোর্ডের শট রুখে এ যাত্রায় দলকে বাঁচান গোলরক্ষক আলিসন।

৩১তম মিনিটে এগিয়ে যায় সফরকারীরা। জটা ডি-বক্সের সামনে বল বাড়ান ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের উদ্দেশে। গোলরক্ষককে এগিয়ে আসতে দেখে ইংলিশ এই ডিফেন্ডার প্রথম ছোঁয়ায় পাস দেন মানেকে। সহজেই ফাঁকা জালে বল পাঠান সেনেগালের ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে ফাবিনিয়োর শট ফিরিয়ে ব্যবধান বাড়তে দেননি লিডসের গোলরক্ষক। ৭৪তম মিনিটে ভাগ্যের ফেরে গোল পাননি ব্যামফোর্ড। তার শট ক্রসবারে লাগে।

৮৫তম মিনিটে ভালো একটি সুযোগ আসে মোহামেদ সালাহর সামনে। ডি-বক্সে ঢুকে বাইরে মেরে হতাশ করেন তিনি। এর দুই মিনিট পরই সতীর্থের কর্নারে হেডে সমতা ফেরান ইয়োরেন্তে। উল্লাসে মাতে স্বাগতিকরা।

টানা তিন জয়ের পর পয়েন্ট হারাল লিভারপুল। ৩২ ম্যাচে ১৫ জয় ও আট ড্রয়ে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে তারা। সমান ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে দশম স্থানে লিডস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *