এক ইনিংসে যত রেকর্ড গড়লেন শান্ত

বাংলাদেশ ক্রিকেট

ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিকে নাজমুল হোসেন শান্ত টেনে নিলেন অনেক দূর। স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাটিং করে নির্ভরতার পরিচয় দিয়ে তিনি ছাড়িয়ে গেলেন দেড়শ।


বৃহস্পতিবার ক্যান্ডি টেস্টের দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয় সেশনে শান্তকে থামতে সমর্থ হলো শ্রীলঙ্কা। টানা ব্যর্থতা ছাপিয়ে এই ইনিংসে নিজের সামর্থ্যের ছাপ রাখেন তিনি। তার ব্যাট থেকে এসেছে ১৬৩ রান। ধৈর্যের পরিচয় দিয়ে ৩৭৮ বল খেলে তিনি মারেন ১৭ চার ও ১ ছক্কা। এই ইনিংসের পথে বাংলাদেশের হয়ে বেশ কয়েকটি রেকর্ডে জায়গা করে নিয়েছেন শান্ত। একনজরে দেখে যাক রেকর্ডগুলো

প্রথম সেঞ্চুরিতে সর্বোচ্চ রান
বাংলাদেশিদের মধ্যে নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির ইনিংসকে বেশি দূর টেনে নেওয়ার রেকর্ডে এখন নাজমুলের নাম যোগ হয়েছে। মুমিনুল হক ২০১৩ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৮১ রান করেছিলেন। সেটিই ছিল তাঁর প্রথম সেঞ্চুরি। নাজমুলের ১৬৩ রান আছে এই তালিকার দুইয়ে। ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সৌম্য সরকারের ১৪৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংসটি আছে তৃতীয়তে।

প্রথম সেঞ্চুরিতে সর্বোচ্চ বল
বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বল খেলার রেকর্ডে আমিনুল ইসলামের পরই এখন নাজমুলের নাম। আমিনুল ৩৮০ বলে ১৪৫ রানের ঐতিহাসিক ইনিংস খেলেছিলেন ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্টে। নাজমুল খেলেছেন ৩৭৮ বল।

টেস্টে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ বল
বাংলাদেশিদের মধ্যে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ বল খেলার রেকর্ডেও শীর্ষ পাঁচে উঠে এসেছেন নাজমুল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২১৯ রান করতে ৪২১ বল খেলা মুশফিকুর রহিম আছেন এই তালিকায় শীর্ষে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আশরাফুল তাঁর ক্যারিয়ার-সেরা ১৯০ রান করেছেন ৪১৭ বল খেলে। ভারতের বিপক্ষে আমিনুল ১৪৫ রান করেছেন ৩৮০ বলে। নাজমুলের ৩৭৮ বলের ইনিংসটির অবস্থান আমিনুলের ইনিংসের পরই। পাকিস্তানের বিপক্ষে জাভেদ ওমরের ৩৫৭ বলের ইনিংস আছে এই তালিকায়।

তৃতীয় উইকেটে সর্বোচ্চ জুটি
জুটির রেকর্ডেও নাম লিখিয়েছেন নাজমুল। তৃতীয় উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জুটি এখন আজকের ইনিংসে গড়া নাজমুল ও মুমিনুলের ২৪২ রান। ২০১৮ সালে এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই ২৩৬ রানের জুটি গড়েন মুমিনুল ও মুশফিক।

জুটিতে সবচেয়ে বেশি বল
জুটি বেঁধে বল খেলার রেকর্ডেও এই দুই বাঁহাতি জায়গা পাকা করে নিয়েছেন। ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আশরাফুল-মুশফিক জুটি ৫১৮ বল খেলে। যেকোনো জুটিতে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি বল খেলার রেকর্ডে এই জুটিই শীর্ষে। তার পরই আছেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নাজমুল-মুমিনুলের ৫১৪ বলের জুটি। ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জাভেদ ওমর-নাফিস ইকবাল মিলে খেলেছিলেন ৪৯৮ বল।

সফরকারী দল হিসেবে সর্বোচ্চ রানের জুটি
শ্রীলঙ্কার মাটিতেও দ্বিতীয় সেরা মুমিনুল-নাজমুলের জুটি। তৃতীয় উইকেট জুটিতে সফরকারী দলের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২৬২ রানের জুটি গড়ার রেকর্ড নিউজিল্যান্ডের রস টেলর ও কেন উইলিয়ামসনের। এরপরই আছে নাজমুল ও মুমিনুলের ২৪২ রানের জুটি। ২০১৫ সালে পাকিস্তানের ইউনুস খান ও শান মাসুদও ২৪২ রানের জুটি গড়েন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *