২২ বলে ২৬ থেকে ২৫ বলে ৫০; এক ওভারে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়লেন জাদেজা!

আইপিএল

ব্যাট হাতে নেমে সেট হওয়ার আগেই ফিরতে পারতেন। কিন্তু ডেনিয়েল ক্রিস্টেইন ক্যাচটা মিস করে যেন ম্যাচটাই মিস করে দিলেন। আর জীবন পেয়েউ বাজিমাত করলেন চেন্নাই অলরাউন্ডার রাবিন্দ্র জাদেজা। আরসিবির সেরা বোলার হার্ষাল প্যাটেলকেই শেষ ওভারে ৫ ছক্কায় ৩৭ রান নিয়ে গড়লেন এক ওভারে সর্বোচ্চ রান নেওয়ার রেকর্ড।


আইপিএলের ১৯ তম ম্যাচে আজ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরে বিরুদ্ধে টসে জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয় চেন্নাই সুপার কিংস। মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে ফ্যাফ ডু প্লেসি ও ঋতুরাজ গায়েকোয়াড়ের মধ্যে ৭৪ রানের পার্টনারশিপ হয়। ২৫ বলে ৩৩ রান করে আউট হন ঋতুরাজ। চারটি চার ও একটি ছক্কা আসে তাঁর ব্যাট থেকে। ওপেনিং পার্টনারকে হারিয়েও থেমে যায়নি ডু প্লেসির ব্যাট। তিনিও ফিফটি তুলে নেন। পাঁচটি চার ও একটি ছক্কা সহযোগে ৪১ বলে ৫০ রান করেন তিনি।

এরপর পরিস্থিতি আরও কঠিন হতে পারত, যদি আরসিবি-র ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে রবীন্দ্র জাদেজার ক্যাচ ধরে ফেলতেন ড্যানিয়েল ক্রিস্টিয়ান। কিন্তু সেই ক্যাচ ফেলে উল্টে ফের দলের ওপর চাপ ফিরিয়ে দেন আরসিবি অল রাউন্ডার। চাপ কাটিয়ে ব্যাট চালিয়ে খেলতে শুরু করেন রবীন্দ্র জাদেজা ও আম্বাতি রায়ডু।

বলে ১৪ রান করে আউট হন রায়ডু। একটি ছক্কা ও একটি চার আসে তাঁর ব্যাট থেকে। তবে ঝড়ো তোলেন জাদেজা। ইনিংসের শেষ ওভারের আগে তার রান ছিল ২২ বলে ২৬। সেখান থেকে পরপর তিন বলে হাঁকান ছক্কা। তৃতীয় বলটি নো হওয়াতে ফ্রি হিটে ছক্কা মেরে ৩ বলে ২৪ রান নিয়ে ২৫ বলে ফিফটি তুলে নেন জাদেজা। চতুর্থ বলে ২ রানের পর একই ওভারে পঞ্চম বলে ছক্কা ও শেষ বলে ৪ হাঁকান জাদেজা।

হার্শাণ প্যাটেলের সেই ওভারে ৩৭ রান নিয়ে আইপিএল ইতিহাসে এক ওভারে সর্বোচ্চ রান নেওয়ার গেইলের রেকর্ডে ভাগ বসান জাদেজা। ২০১১ আইডিএলে প্রশান্ত পরমেশ্বরনের এক ওভারে সমান ৩৭ রান নিয়েছিলেন ক্রিস গেইল।

২৮ বলে ৬২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন রবীন্দ্র জাদেজা। শেষ ওভারে পাঁচটা ছক্কা হাঁকান তিনি। যা এক ওভারে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ডও। জাদেজা ঝড়ে আরসিবিকে ১৯২ রানের টার্গেট দিয়েছে চেন্নাই।

আরো পড়ুনঃ- জাদেজার ব্যাট-বলের তান্ডবে উড়তে থাকা ব্যাঙ্গালোরকে মাটিতে নামালো চেন্নাই
এক ওভারে ৩৭ রান দিয়ে রেকর্ড গড়লেন হার্শাল প্যাটেল! (ভিডিও)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *