জীবন দিয়ে হলেও পিএসজিকে ফাইনালে তুলবেন নেইমার

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে রাতে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে মাঠে নামবে প্যারিস সেন্ট জার্মেইন। ঘরের মাঠে প্রথম লেগে ১-২ গোলে পরাজিত হওয়ায় সিটির মাঠে বড় জয়ের বিকল্প নেই প্যারিসিয়ানদের। বাঁচা-মরার এই ম্যাচে যে করেই হোক দলকে জেতাতে চান প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার জুনিয়র।

এখনো লিগ শিরোপা জয় নিশ্চিত হয়নি পিএসজির। আর মাত্র ৩ রাউন্ডের খেলা বাকি থাকলেও এখনো লিলের চেয়ে ১ পয়েন্টে পিছিয়ে আছে প্যারিসের দলটি। তাই শিরোপা জয়ের জন্য শেষ তিন ম্যাচে ভালো করার সাথে সাথে তাকিয়ে থাকতে হবে লিলের ম্যাচের দিকেও! কেননা তারা পয়েন্ট না হারালে শেষ তিন ম্যাচ জিতেও কোন কাজ হবে না মাউরিসিও পচেত্তিনোর দলের।

একই অবস্থা চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও, স্বস্তিতে নেই দলটি। প্রথম লেগে পরাজিত হওয়ায় এই ম্যাচে জয়ের বিকল্প কিছু ভাবর সুযোগ নেই তাদের। এখানেও আজকের ম্যাচে শুধু জিতলেই হবে না মাথায় রাখতে হবে অ্যাওয়ে গোলের হিসাবও।

কাঙ্ক্ষিত ফাইনালের লক্ষ্যে আজ (মঙ্গলবার) বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১টায় সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির মাঠে খেলতে নামবে পিএসজি। নিজেদের ঘরের মাঠে প্রথম লেগের ম্যাচে ১-২ গোলে হেরেছিলো ফ্রেঞ্চ চ্যাম্পিয়নরা। ফলে দ্বিতীয় লেগে অন্তত দুই গোলের জয় প্রয়োজন তাদের।

এ জয়ের জন্য সম্ভাব্য যেকোনো কিছু করতে রাজি পিএসজির সবচেয়ে বড় তারকা নেইমার জুনিয়র। গত আসরের মতো এবারও দলকে ফাইনালে তুলতে প্রয়োজনে জীবনও দিয়ে দিতে রাজি এ ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন। ম্যান সিটির মুখোমুখি হওয়ার আগে এ কথা বলেছেন তিনি নিজেই।

নেইমার বলেছেন, “ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে আমাদের কঠিন এক ম্যাচ অপেক্ষা করছে। তবে আমাদের সবাইকে বিশ্বাস রাখতে হবে। আমাদের জয়ের ব্যাপারে পরিসংখ্যান কী বলছে, তাতে নজর না দিয়ে, নিজেদের ওপর বিশ্বাস করতে হবে।”

তিনি আরও যোগ করেন, “প্যারিসের প্রতিটি মানুষকে জয়ের বিশ্বাসটা রাখতে হবে। যার মধ্যে আমি প্রথম, আমি ফ্রন্টলাইনে আছি। এ যুদ্ধের প্রথম যোদ্ধা আমি। ফাইনালে ওঠার জন্য নিজের সেরাটা দিবো এবং সম্ভাব্য সবকিছু করব। এমনকি সেটা যদি মাঠে মরে যাওয়াও হয়।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *