জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে ইতিহাস গড়লেন অধিনায়ক বাবর আজম

ক্রিকেট

ব্যাটিং আজহার আলির সেঞ্চুরি, আবিদ আলির ডাবল সেঞ্চুরি এরপর বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে হাসান আলীর তোপের দ্দ্বিতীয় ইনিংসে নোমান আলীর তাণ্ডব, এভাবেই পাকিস্তানের চার আলীতে বিধ্বস্ত হয়ে প্রথম টেস্টের পর দ্বিতীয় টেস্টেও ইনিংস ব্যবধানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হলো জিম্বাবুয়ে। অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর ব্যাট হাতে তেমন পারফর্ম করতে না পারলেও এই ম্যাচ জিতে একমাত্র পাকিস্তানি অধিনায়ক হিসেবে প্রথম চার টেস্টের চারটিতেই জয়ের কীর্তি গড়েছেন বাবর।


হারারেতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করা থেকে মাত্র ১ উইকেট দূরে ছিল সফরকারীরা। আজ দিনের পাঁচ ওভারেই সেই উইকেট তুলে নিয়ে ইনিংস ও ১৪৭ রানের ব্যবধানে জয় পেয়েছে পাকিস্তান একই ভেন্যুতে দুই ম্যাচ সিরিজের আগের টেস্টে তারা জিতেছিল ইনিংস ও ১১৬ রানে।

দ্বিতীয় দিনের ৪ উইকেটে ৫২ রান নিয়ে তৃতীয় দিনে খেলতে নেমে জিম্বাবুয়ে লাঞ্চের আগে অলআউট হয় মাত্র ১৩২ রানে। পরে ফলো-অনে নেমে তারা অলআউট হয় ২৩১ রানে।

তৃতীয় চতুর্থ বলেই উইকেট খোয়ায় জিম্বাবুয়ে। নাইটওয়াচম্যান টেন্ডাই চিসোরোকে ফিরিয়ে দেন ডানহাতি পেসার হাসান। এরপর তিনি শিকার করেন রেগিস চাকাবা আর লুক জঙ্গুয়ের উইকেটও। কোনো জুটিই গড়ে তুলতে পারেনি জিম্বাবুইয়ানরা। শেষদিকে ডোনাল্ড টিরিপানো দলের সংগ্রহ তিন অঙ্ক পার করান। হাসান ৫ উইকেট পান ২৭ রানে।

দ্বিতীয় সেশনে ফের বোলিংয়ে নেমে শুরুতেই সাফল্য পায় পাকিস্তান। বাঁহাতি পেসার শাহিন বিদায় করেন ওপেনার টারিসাই মুসাকান্দাকে। এরপর আরেক ওপেনার কেভিন কাসুজার সঙ্গে ৫০ ও অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেইলরের সঙ্গে ৭৯ রানের দুটি জুটি গড়েন চাকাবা। তাকে আউট করেন বাঁহাতি স্পিনার নুমান। ১৩ চার ও ২ ছয়ে তার সংগ্রহ ১৩৭ বলে ৮০ রান।

চাকাবার বিদায়ের পর ধসে পড়ে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপ। মিল্টন শুম্বাকে সাজঘরে পাঠানোর পাশাপাশি পরপর দুই বলে নুমান পরাস্ত করেন টিরিপানো ও রয় কাইয়াকে। শাহিনও টানা দুই বলে চিসোরো ও রিচার্ড এনগারাভাকে তুলে নিলে ২০৫ রানে জিম্বাবুয়ের নবম উইকেটের পতন হয়। অথচ এক পর্যায়ে তাদের সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটে ১৮৮ রান।

ম্যাচের ফল এদিনই নির্ধারণ করতে শেষ বেলায় বাড়তি আরও প্রায় আধা ঘণ্টা খেলা চালিয়ে নেন আম্পায়াররা। তবে পাকিস্তানের বোলাররা আর সফলতা পাননি। লুক জঙ্গুয়ে ও ব্লেসিং মুজারাবানি অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন। খেলা একদিন পিছিয়ে নিতে পারলেও হার ঠেকাতে পারেননি তারা। আজ দিনের শুরুতে লুকে জঙ্গে ফিরলে শেষ হয় জিম্বাবুয়ের ইনিংস।

পাকিস্তানের হয়ে পাঁচটি করে উইকেট নেন নোমান আলী ও শাহিন আফ্রিদি।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ
পাকিস্তান(প্রথম ইনিংস): ৫১০/৮ ডিক্লেয়ার (১৪৭.১ ওভার); আবিদ ২১৫*, আজাহার ১২৬, নোমান ৯৭; মুজারাবানি ৩/৮২, চিসোরো ২/১৩১

জিম্বাবুয়ে(প্রথম ইনিংস): ১৩২/১০ (৬০.৪ ওভার); চাকাভা ৩৩, তিরিপানো ২৩, জংউই ১৯; হাসান ৫/২৭, সাজিদ ২/৩৯

জিম্বাবুয়ে(দ্বিতীয় ইনিংস): ২২০/৯ (৬৩ ওভার); চাকাভা ৮০, টেইলর ৪৯, জংউই ৩১*; নোমান ৫/৮৬, শাহিন ৪/৪৫

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *