আশরাফুলের ব্যাটে রান; তানবীর ঝড়ে মোহামেডানকে হারাল শেখ জামাল

ডিপিএল (ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ)

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ সুপার লিগে টানা তৃতীয় পরাজয়ের স্বাদ পেল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। সব মিলিয়ে লিগে এটি তাদের টানা চতুর্থ হার। শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব বুধবার মোহামেডানকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে।

মিরপুর শের-ই-বাংলায় আগে ব্যাটিং করে মোহামেডান ৯ উইকেটে মাত্র ১৩৩ রান সংগ্রহ করে। জবাবে ৬ বল হাতে রেখে ৭ উইকেটের বিশাল জয় তুলে নেয় শেখ জামাল। এ জয়ে শেখ জামাল শিরোপার লড়াইয়ে টিকে থাকলেও মোহামেডান ছিটকে গেছে। ১৪ ম্যাচে ৮ জয়ে শেখ জামালের পয়েন্ট ১৭। মোহামেডানের ১৪ ম্যাচে জয় ৬টি, হেরেছে ৭টিতে।

জয় পাওয়া ম্যাচে শেখ জামালের মোহাম্মদ অশরাফুল, কাজী নুরুল হাসান সোহান ও তানবীর হায়দার রানের দেখা পেয়েছেন। আশরাফুল ৪২ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় করেছেন ৩৮ রান।

তবে সোহান ৩১ বলে ৩৬ রান করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। আর শেষ দিকে ব্যাটিংয়ে নেমে ঝড় তোলেন তানবীর হায়দার। ১৭ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় তার ব্যাট থেকে আসে ৩২ রান। তাতে শেখ জামালের জয় নিশ্চিত হয়ে যায় খুব সহজে। তিনে নামা ইমরুল ২৫ রান করে শুভাগত হোমের বলে বোল্ড হন। ওপেনিংয়ে সৈকত আলী খুলতে পারেননি রানের খাতা।

এর আগে পারভেজ হোসেন ইমন ও শামসুর রহমান শুভর ব্যাটে ৯ উইকেটে ১৩৩ রান তোলে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। শুভ সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেন। ইমনের ব্যাট থেকে এসেছে ৪৬ রান। এছাড়া ১৭ রান করেন ইরফান শুক্কুর। বাকিরা কেউ দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছতে পারেননি।

বল হাতে ১৭ রানে ৩ উইকেট নিয়ে শেখ জামালের সেরা বোলার পেসার ইবাদত হোসেন। ৩ উইকেট পেয়েছেন জিয়াউর রহমানও। তবে রান দিয়েছেন ২৯। ১ উইকেট গেছে মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদির পকেটে।

ইমন ও শুভর ব্যাটে মোহামেডান দারুণ ব্যাটিং করছিল। এ জুটি লেগ স্পিনার আফ্রিদি ভাঙলে বিপর্যয়ে পড়ে মোহামেডান। শেষ দিকে রানের চাকা থেমেই গিয়েছিল। শেষ ৫ ওভারে মাত্র ২৮ রান তুলেছে মতিঝিল পাড়ার দলটি। এ সময়ে বাউন্ডারি এসেছে মাত্র ৪টি। ইমন আগের ম্যাচে ২০ বলে ৪৫ রান করেছিলেন। আজ ৩৫ বলে করেন ৪৬ রান। ৩টি করে চার ও ছক্কা হাঁকিয়েছেন তিনি। শুভর ইনিংসটি ছিল মন্থর। ৪০ বলে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪৯ রানের ইনিংসটি খেলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *