বিশ্বকাপে জায়গা পেতে হলে বাংলাদেশের সঙ্গে ভালো করতে হবে – অ্যারন ফিঞ্চ

ক্রিকেট

চলতি বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। যদিও নিশ্চিত হয়নি কোথায় বসবে এবারের আসর। তবে এশিয়ার কোনো দেশে হবে এটা অন্তত নিশ্চিত।

আর এই বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতেই আগামী আগস্টে বাংলাদেশ সফরে আসছে অস্ট্রেলিয়া। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে এরই মধ্যে ১৮ সদস্যের চূড়ান্ত দলও ঘোষণা করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

বাংলাদেশে আসার আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর করবে একই দল নিয়ে। তবে দলে নেই বেশ কয়েকজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। দুটি সফর থেকে নাম সরিয়ে নেন ডেভিড ওয়ার্নার, প্যাট কামিন্স, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, জাই রিচার্ডসন, কেন রিচার্ডসন ও মার্কাস স্টয়নিস। স্টিভ স্মিথ আসবেন না কনুইয়ের চোটের কারণে।

এমন অবস্থায় দলে আধিক্য দেয়া হয়েছে তরুণদের। আর এটাই তাদের জন্য বড় সুযোগ মানছেন দলের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। জানিয়েছেন, আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলে জায়গা নিতে হলে ভালো খেলতে হবে এই দুটি সিরিজে।

ফিঞ্চ বলেন, “আসন্ন দুটি সিরিজে ভালো খেললে সাফল্য ধরা দেবে তরুণদের। এখানে ভালো খেললে দলে জায়গা পাকা করা সহজ হবে। আমি মনে করি তারা সবাই পরীক্ষিত। বিগ ব্যাশে ওরা সবাই ভালো করেছে।”

দলে যারা সুযোগ পেয়েছে তারা ঘরোয়া লিগে ভালো করার পুরষ্কার পেয়েছে বলে মনে করেন ফিঞ্চ। এই দলে একেবারেরি নতুন মুখ পেসার ওয়েস অ্যাগার। ফিঞ্চ মানছেন, নতুন হোক আর পুরনো সবাইকে খেলতে হবে অস্ট্রেলিয়ার জন্য।

“আমরা সবাই অস্ট্রেলিয়ার জন্য খেলি। এখানে নতুন, পুরনো এসব বিবেচনা করে বসে থাকলে হবে না। সবাইকে সবার সেরাটা দিতে হবে।”

ভারতে বিশ্বকাপ হবে কী না এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি। করোনার বর্তমান পরিস্থিতির জন্য সরে যেতে পারে অন্য দেশে। তবে এশিয়াতেই হবে। আর বাংলাদেশে খেলাটা অনুশীলনের জন্য বড় রকমের সুবিধা। ফিঞ্চ জানিয়ে দিলেন, যারা সুযোগ পেয়েছে দলে তারা যদি বিশ্বকাপ খেলতে চায় তবে ভালো খেলতে হবে বাংলাদেশের সঙ্গে।

“বিশ্বকাপের দলে জায়গা করে নিতে হলে ভালো খেলতে হবে বাংলাদেশের সঙ্গে। আসন্ন বিশ্বকাপ ভারত বা আরব আমিরাতে আমরা যেমন কন্ডিশন পাবো সেটির সঙ্গে বাংলাদেশের কন্ডিশনের মিল থাকবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *