নবম উইকেটে জুটিতে সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ড গড়লেন মাহমুদউল্লাহ-তাসকিন

বাংলাদেশ ক্রিকেট

হারেরে টেস্টের প্রথম দিনে যেখানে মনে হচ্ছিল সর্বনিম্ন রানে অলআউটের লজ্জায় পড়বে বাংলাদেশ সেখানেই নতুন ইতিহাস লিখলেন তাসকিন ও মাহমুদউল্লাহ। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা ঢাকিয়ে নবম উইকেটে গড়লেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ড রেকর্ড।


আগের দিনে ২০ রানের জুটির পর আজ আরো ১৭০ রান যোগ করেছেন এই ব্যাটসম্যান। এরই সাথে টেস্টের ইতিহাসে নবম উইকেট জুটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জুটির রেকর্ডেও নাম লিখিয়েছেন দুই বাংলাদেশী।

টেস্টে নবম উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের জুটির রেকর্ড দক্ষিণ আফ্রিকার মার্ক বাউচার ও সাইমক্সের। ১৯৯৮ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে জোহানসবার্গে এই দুইজন ১৯৫ রানের জুটি গড়েছিলেন। এর আগে দুইয়ে থাকা পাকিস্তান আসিফ ইকবাল ও ও ইনতিকাব আলমের ১৯৬৭ সালে করা ১৯০ রানের জুটিকে ছাড়িয়ে যান তাসকিন ও মাহমুদউল্লাহ। দুজনে গড়েন ১৯১ রানের জুটি। ৫ রানের জন্য গড়া হয়নি সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড জুটি।

এর আগে আরো একটি নবম উইকেটে জুটির রেকর্ডেও নাম ছিল মাহমুদউল্লাহর। আবুল হাসানের সাথে তার ২০১২ সালে ১৮৪ রানের জুটিটিই ছিল এতোদিন বাংলাদেশের হয়ে নবম উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি।

৮ উইকেটে ২৯৪ নিয়ে দ্বিতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নামেন আগের দিনের অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান তাসকিন আহমেদ ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সকালে ঝলমলে আলোর মতোই দ্যুতি ছড়াতে থাকেন দুজনই। অসাধারণ কাভার ড্রাইভে মুগ্ধ করে নিজেকে ছাড়িয়ে যেতে থাকেন তাসকিন। অন্যদিকে দীর্ঘদিন পর দলে ফেরা মাহমুদউল্লাহ যেন মুগ্ধ করে যাচ্ছিলেন।

প্রথম সেশনে জিম্বাবুয়ে বোলারদের উপর ছড়ি ঘুরিয়ে শতকের দিকে এগুচ্ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অন্যদিকে প্রথম ফিফটির দিকে এগুতে থাকেন তাসকিন আহমেদ। একশতম ওভারের তৃতীয় বলে কাইয়াকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ক্যারিয়ারের পঞ্চম শতক তুলে নেন মাহমুদউল্লাহ। পরের ওভারেই ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি তুলে নেন তাসকিন।

দারুণ ব্যাটিংয়ে এগুচ্ছিলেন শতকের দিকে। কিন্তু দলীয় ৪৬২ রানে বড় শট খেলতে গিয়ে শুম্বার বলে বোল্ড হয়ে ফিরতে হয় তাকে। ফেরার আগে খেলেন ১৩৪ বলে ১১ বাউন্ডারিতে ৭৫ রানের দারুণ ইনিংস। এতেই ভাঙে ১৯১ রানের জুটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *