কিছুক্ষণ পর ফাইনালে মাঠে নামছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা; খেলাটি লাইভ দেখবেন যেভাবে

কোপা আমেরিকা ফুটবল

দেখতে দেখতে একেবারে শেষ পর্যায়ে উপনীত হলো কোপা আমেরিকার এবারের আসর। স্বপ্নের ফাইনালে আর কিছুক্ষণ পর মুখোমুখি হবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল ৬ টায়। আর খেলাটি লাইভ দেখানে সনি সিক্স চ্যানেলে।

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দৈরথ মানেই যেন উত্তেজনার পারদ থাকে তুঙ্গে। হোক সেটা প্রীতি ম্যাচ বা কোন প্রতিযোগিতার লড়াই, আর লড়াইটা যদি হয় কোন বড় আসরের ফাইনাল তাহলে তো কথায় নেই।

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা সর্বশেষ কোন ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিলো ১৪ বছর আগে। সেবারও এই কোপার ফাইনালেই মুখোমুখি হয় দুই দল। সেই ম্যাচে শেষ হাসি হেসেছিলো ব্রাজিল। তরুণ মেসি সাক্ষী হয়েছিলেন দলের অসহায় আত্মসমর্পণের। আবার যখন কোপা আমেরিকার ফাইনালে কাল মাঠে নামবে দুই দল, ২২ ফুটবলারের মধ্যে সবার সেরা হয়েই নামবে সেই মেসি।

রোড টু ফাইনাল

ব্রাজিল

গ্ৰুপ পর্বের ৪ ম্যাচে ৩ জয় আর ১ ড্র নিয়ে সেরা হয়েই শেষ আটে নাম লেখায় ব্রাজিল। কোয়ার্টারে চিলিকে ১-০ গোলে পরাজিত করে সেলেকাওরা। সব শেষ সেমিফাইনালে পেরুকেও একই ব্যবধানে পরাজিত করে তিতের শিষ্যরা। এবারের আসরে সর্বমোট ১২টি গোল করেছে ব্রাজিল, পক্ষান্তরে হজম করেছে মাত্র ২টি গোল। ব্রাজিলের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ২টি করে গোল করেছেন নেইমার ও পাকুয়েটা।

আর্জেন্টিনা

ব্রাজিলের মতো গ্ৰুপ পর্বের সেরা হয়েই কোয়ার্টার ফাইনালে আসে আর্জেন্টিনা। কোয়ার্টার ফাইনালে ইকুয়েডরকে ৩-০ গোলে হারানোর পর সেমিফাইনালে কলম্বিয়াকে টাইব্রেকারে পরাজিত করে ফাইনালে উত্তীর্ণ হয় আলবেসিলেস্তেরা।

আর্জেন্টিনার পক্ষে সবচেয়ে বেশি ৪টি গোল করেছেন দলটির সেরা তারকা লিওনেল মেসি। সেই সাথে করেছেন আরও ৫টি অ্যাসিস্ট। ৩টি গোল করেছেন লাউতারো মার্টিনেজ।

নজর থাকবে যাদের উপর

ব্রাজিল

ফাইনাল ম্যাচে নেইমার-পাকুয়েটা জুটির দিকে তাকিয়ে থাকবে ব্রাজিল। নক আউটের দুই ম্যাচেই এই দুই তারকার রসায়নে পার পেয়েছে স্বাগতিকরা।

এছাড়া সিলভা-মার্কুইনহোসের কাঁধে থাকা জমাট রক্ষণভাগও আশা দেখাচ্ছে ব্রাজিলকে।

আর্জেন্টিনা

এই আর্জেন্টিনা দলের দিকে তাকালে সমস্ত আলো টুকুই নিজের দিকে টেনে নেবেন লিওনেল মেসি। এবারের টুর্নামেন্টেও একা হাতেই আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নিচ্ছেন এই সুপারস্টার। কেননা কোপার এবারের আসরে যে ১১টি গোল করেছে আর্জেন্টিনা তার ৯টিতেই (৪ গোল, ৫ অ্যাসিস্ট) প্রত্যক্ষভাবে জড়িয়ে আছে মেসির নাম।

আর্জেন্টিনার ভরসা করার মতো আরও একজনের নাম এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। গোলবারে ব্রাজিলিয়ানদের সামনে বাঁধার দেয়াল হয়ে দাঁড়াতে চাইবেন এই তারকাও।

অপরদিকে শেষ কয়েক ম্যাচে জালের দেখা পাওয়ায় আত্মবিশ্বাস নিয়েই খেলতে নামবেন লাউতারো মার্টিনেজও।

হেড টু হেড (ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা)

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে খানিকটা এগিয়ে আছে ব্রাজিল। মুখোমুখি হওয়া ১০৭ ম্যাচে ৪৩ ম্যাচে জিতেছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনার জয় ৩৯ ম্যাচে। বাকি ২৫ ম্যাচ হয়েছে ড্র।

কোপা আমেরিকায় এখন পর্যন্ত ৩৩ বার মুখোমুখি হয়েছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। ব্রাজিলের জয় ১৫ ম্যাচে, আর্জেন্টিনা জিতেছে ১০টিতে। বাকি ৮ ম্যাচ হয়েছে ড্র।

স্পোর্টস জোন পাওয়ার প্রেডিকশন

ব্রাজিল ২-১ আর্জেন্টিনা

সকল পরিসংখ্যান পেছনে ফেলে মাঠের লড়াইয়ে যে দল ভালো করবে শিরোপা উঠবে তারই হাতেই। কোন দলই যে কাউকে এক বিন্দু ছাড় দেবে না সে কথা নিঃসন্দেহেই বলা যায়।

কার হাতে উঠবে কোপা আমেরিকার শিরোপা? নিজেদের ইতিহাসের দশম কোপা জিতবে ব্রাজিল নাকি ২৮ বছর পর কোপার শিরোপা আবারও ঘরে তুলবে আর্জেন্টিনা? প্রশ্নের উত্তরগুলো না হয় তোলা থাক সময়ের হাতেই!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *