রিক্সা চালকদের পাশে দাড়ালেন দুই ফুটবলার

অন্যান্য খবর

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে দেশে একরকম স্থবিরতা বিরাজ করছে। অফিস-আদালতের মতো খেলাধুলাও বন্ধ। কিন্তু দিন আনে দিন খায়-এই মানুষগুলোর জীবনে নেমে এসেছে বিভীষিকা। এই দুঃসময়ে নিজের এলাকা সিলেটের সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ফুটবলার বিপুল আহমেদ ও আরিফুর।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের মোড়ে মাস্ক পরা এক যুবক নামলেন সিএনজি থেকে। এরপর ব্যাগভর্তি জিনিস এক এক জনকে দিলেন। সিলেট শহরের বিভিন্ন রিকশাওয়ালার হাতে তুলে দেন চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় কিছু দ্রব্যের একটি করে প্যাকেট। 

ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওর এই যুবকের নাম বিপলু আহমেদ। সিলেটেরই ছেলে। জাতীয় ফুটবল দলের উইঙ্গার তিনি। সহায়তার ভিডিওটি আপলোড করেছেন নিজের ফেইসবুক পেজে।

মূলত সবাইকে অনুপ্রাণিত করতেই এই ভিডিও আপলোড করেন বিপুল। ফুটবলারদের ও সমাজের সামর্থ্যবান মানুষেরও এই সময়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানালেন ২০ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার।

“করোনাভাইরাসের কারণে সবকিছু লকডাউন হয়ে গেছে। যারা দিন আনে দিন খায়, তারা খুবই খারাপ অবস্থায় আছে। যারা রিকশা চালায় বা মজুর শ্রেণি, তারা তো এখন রিকশাও চালাতে পারছে না। কাজও করতে পারছে না। তাই আমার সামর্থ্য অনুযায়ী আমার দিক থেকে যতটা পারি চেষ্টা করেছি।”

“সবার প্রতি আমার আহ্বান সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করুন। ফুটবলার ও যারা সামর্থ্যবান, তাদের কাছে প্রত্যাশা এই দুঃসময়ে সাধারণ মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসবে। যারা কষ্টে আছে, তাদের পাশে দাঁড়ান।”

আর বিপলুর এমন উদ্যোগ দেখে উৎসাহিত হন জাতীয় দলে তার সতীর্থ আরিফুর। কুমিল্লার বিবিরবাজারে নিজের বাড়ির আশপাশের দরিদ্র লোকদের মাঝে খাবারের প্যাকেট বিতরণ করেন তিনি। এরপর শহরের বিভিন্ন বয়স্ক রিকশাওয়ালার হাতে তুলে দেন এমন সহায়তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *