স্ত্রীর সঙ্গে একসঙ্গে সময় কাটানোর বড় সুযোগ দেখছেন সৌম্য

বাংলাদেশ ক্রিকেট

গত মাসের ফেব্রুয়ারিতে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন সৌম্য সরকার। খুলনার মেয়ে প্রিয়ন্তি দেবনাথ পূজাকে বিয়ে করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে মাঠে ফিরেন সৌম্য। তবে এরপর ডিপিএল চলা অবস্থায় করোনাভাইরাসের প্রভাবে বন্ধ হয়ে যায় দেশ-বিদেশের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ইভেন্ট গুলো। আর তাই বর্তমানে বাসায় অবসর সময় কাটাচ্ছেন এই ওপেনার ব্যাটসম্যান।

পরিবারের সাথে সময় কাটানোর সুযোগ অনেকটা কম হয় ক্রিকেটারদের। আর তাই বর্তমানে সময়ে কোভিড-১৯ এর কারণে বাসায় বসে স্ত্রীর সঙ্গে একসঙ্গে সময় কাটানোর বড় সুযোগ দেখছেন সৌম্য। ‘বিডিনিউজ’ কে এক সাক্ষাৎকারে সৌম্য সরকার এসব বলেন।

তিনি বলেন;“সময় কেটে যাচ্ছে ভালো-মন্দ মিশিয়ে। এমনিতে আমাদের নতুন সংসার, স্ত্রীর সঙ্গে একসঙ্গে সময় কাটানোর বড় সুযোগ মিলেছে। তবে মাঠের মানুষ তো, মাঠে যেতে না পেরে হাঁপিয়ে উঠছি। গত ১৭ মার্চের পর থেকে বাড়ির বাইরে যাইনি। এমনকি বাসার নিচেও নামিনি। বার দুয়েক ছাদে গিয়েছি কেবল। ব্যাট-বলের দিকে তাকালেই খারাপ লাগে। মনে হয়, ব্যাট নিয়ে বের হয়ে যাই এক্ষুনি।”

এমনিতে সিনেমা-নাটক দেখছি, গান শুনছি, লুডু-ক্যারম খেলছি। যতভাবে মজা করা যায়, নিজেদের ব্যস্ত রাখা যায়, চেষ্টা করছি। ফিটনেসের কাজও করছি, সীমাবদ্ধতার ভেতর যতটুকু সম্ভব হয়। সিঁড়িতে রানিং করছি।”

এই সময়ে মানসিক বিষন্নতার পড়তে পারেন ক্রিকেটাররা। এ বিষয়ে সৌম্য বলেন;“মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাপারটি আমাদের দেশে আলোচিত না হলেও আমি মনে করি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। বিষন্নতা বা রোগের পর্যায়ে হয়তো যাচ্ছে না, কিন্তু খারাপ লাগা স্বাভাবিক। আমার নিজেরই যেমন মাঝেমধ্যে মাথা খারাপের মতো লাগে। অস্থির লাগে। আমি বা আমার স্ত্রী, কারও তো এত লম্বা সময় ঘরে থাকার অভ্যাস নেই। খেলার ব্যস্ততা যখন তুমুল থাকে, বিশ্রাম নিতে মন চায়, তখনও দু-একদিন বাসায় থাকলেই ইচ্ছে হয় আবার ব্যাট হাতে বেরিয়ে পড়ি। এখন তো কতদিন হয়ে গেল!”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *